আপনার পাঠানো সাহায্যেই দ্রুত সুস্থ হতে পারে বিষয়খালীতে সড়ক দুর্ঘটনায় আহত মানিক


অথর
মানুষ ও মানবতা সংবাদদাতা   ডোনেট বাংলাদেশ
প্রকাশিত :৮ মার্চ ২০২০, ৫:২৭ অপরাহ্ণ | পঠিত : 539 বার
0
আপনার পাঠানো সাহায্যেই দ্রুত সুস্থ হতে পারে বিষয়খালীতে সড়ক দুর্ঘটনায় আহত মানিক

আপনার পাঠানো সাহায্যেই দ্রুত সুস্থ হতে পারে বিষয়খালী বাজার এলাকায় সড়ক দুর্ঘটনায় আহত দরিদ্র রাজমিস্ত্রি ঝিনাইদহ সদর উপজেলার পরমানন্দপুর গ্রামের রামখালী পাড়ার মৃত শামসুদ্দিনের পুত্র মানিক। মা, স্ত্রী ,একমাত্র কন্যা কে নিয়ে ভালোই দিন কাটছিল দরিদ্র রাজমিস্ত্রি মানিকের। দুই ভাই দুই বোনের মধ্যে মানিক দ্বিতীয়। মানিক এর পিতা মারা যাওয়ার পর সংসারের হাল ধরেন মানিক দরিদ্র পরিবারে জন্মগ্রহণ করায় মানিকের অভাবী সংসারে হাল ধরতে হয়। আর তাই তো বেছে নিতে হয় রাজমিস্ত্রির কাজ। রাজমিস্ত্রির কাজ করে প্রতিদিন যে আয় হতো তা দিয়ে কোনরকম সংসার চলত ।মা ,স্ত্রী , দু'বোন একমাত্র কন্যাকে নিয়ে ভালো ভাবেই চলছিল মানিকের অভাবী সংসার । রাজমিস্ত্রির

কাজ করে তার দু'বোনের বিবাহ দিয়েছেন । আর বড় ভাই ছোটকাল থেকেই তাদের পরিবার থেকে আলাদা হয়ে ঢাকায় অবস্থান করছে। তাই তার মা, স্ত্রী ও একমাত্র কন্যাকে নিয়ে সংগ্রামী জীবন পরিচালনা করে আসছিল দরিদ্র রাজমিস্ত্রি মানিক। উল্লেখ্য, হঠাৎ গত ২৫ শে ফেব্রুয়ারি ঝিনাইদহ-যশোর মহাসড়কের বিষয়খালী বাজার রাকিবের চায়ের দোকান নামক স্থানে মঙ্গলবার সন্ধ্যায় সড়ক দুর্ঘটনায় মোটরসাইকেল আরোহী দরিদ্র রাজমিস্ত্রি মানিক মারাত্মকভাবে আহত হয়। আহত মানিক হলেন সদর উপজেলার পরমানন্দপুর গ্রামের রামখালী পাড়ার মৃত. শামসুদ্দিনের পুত্র মানিক ( ৩১) সে মোটর সাইকেলের আরোহী হিসাবে পিছনে বসে ছিলেন। স্থানীয়রা আহতদের উদ্ধার করে দ্রুত ঝিনাইদহ সদর হাসপাতালে ভর্তি করে।এদিকে আহত মানিকের ডান পা


ভেঙে গেছে ।প্রত্যক্ষদর্শী সূত্রে জানা যায়,গত ২৫ ফেব্রুয়ারি বিষয়খালী বাজারের সাপ্তাহিক হাটের দিন হাওয়াই তারা দু'জন বিষয়খালী বাজার থেকে বাজার করে বাড়ি ফিরছিলেন। পথিমধ্যে বিষয়খালী বাজারের রাকিবের চায়ের দোকান নামক স্থানে পৌঁছালে মোটরসাইকেল স্লিপ করে পড়ে গিয়ে ঝিনাইদহ থেকে কালীগঞ্জ অভিমুখে যাওয়া একটি দ্রুতগামী ট্রাকের নিচে চলে গেলে তারা মারাত্মকভাবে আহত হয়। এতে মোটরসাইকেল আরোহী মানিকের পা ভেঙ্গেছে চুরে মারাত্মকভাবে আহত হয়। এলাকাবাসী আহতদের উদ্ধার করে ঝিনাইদহ সদর হাসপাতালে ভর্তি করে। ঐদিন মানিকের অবস্থার অবনতি হলে ঝিনাইদহ সদর হাসপাতালে কর্তব্যরত ডাক্তার ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে রেফার্ড করেন। সেখানে মানিকের অবস্থার অবনতি হলে ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ তাকে ঢাকা পঙ্গু


হাসপাতালে রেফার্ড করে।তার পায়ের অবস্থা এতটাই মারাত্মক ছিল যে ২৮ শে ফেব্রুয়ারি রাতে ঢাকা পঙ্গু হাসপাতালের চিকিৎসকরা তার দেহ থেকে বিচ্ছিন্ন করে ফেলে বাম পা এবং অপারেশনের মাধ্যমে ডান পায়ের চিকিৎসাসেবা দিতে থাকে কিন্তু প্রশ্ন থেকেই যায়!দরিদ্র পরিবারে বেড়ে ওঠা মানিক কিভাবে তার চিকিৎসা সেবা বহন করবে। আর তাই তো সমাজের সকলের নিকট আকুল আবেদন দ্রুত সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরে আসতে হলে তার প্রচুর অর্থের প্রয়োজন আর এই অর্থ একমাত্র আপনারা হাত বাড়ালে সম্ভব। ঢাকা পঙ্গু হাসপাতালের বেডে শুয়ে মুঠোফোনে আর্তনাদে বললেন, আপনারা হাত বাড়ালেই দ্রুত সুস্থ হয়ে আমি বাড়িতে ফিরতে পারব। তবে আমি আর আগের মত চলাফেরা করতে পারবোনা।

আমার সংসারের হাল ধরবে কে এটাই এখন সমাজের কাছে আমার প্রশ্ন থেকেই যাচ্ছে। তার পরেও সংগ্রামী জীবন শুরু করতে হবে আমাকে । সারা জীবনের জন্য পঙ্গুত্ব বরণ করতে হয়েছে সড়ক দুর্ঘটনার কারণে। তাই আমি চাই আমার মতন যেন কেউ আর সড়ক দুর্ঘটনায় পতিত হয়ে পঙ্গুত্ববরণ না করে। আর আপনাদের পাঠানো অর্থেই আমি দ্রুত চিকিৎসা সেবা নিয়ে আপনাদের মাঝে ফিরে আসতে চাই মানিক হিসেবে । আমার মা, স্ত্রী, একমাত্র কন্যাকে নিয়ে কিভাবে আমি দ্রব্যমূল্যের এই বাজারে সংসারের হাল ধরব।আমি বুঝে উঠতে পারছি না তাইতো আমার এই দুঃখ কষ্টের বেদনা গুলো আপনাদের সাথে শেয়ার করলাম। আশা করি আমার এই কষ্টের কথা বিবেচনা

করে আপনারা দু'হাত বাড়িয়ে আমার দ্রুত চিকিৎসার জন্য আপনাদের অর্থই পারে আমাকে দ্রুত সুস্থ হয়ে উঠতে। আমার কাছে অর্থ পাঠাতে চাইলে আমার চাচা মোহাম্মদ শুকুর আলী 01940-543198 বিকাশ নাম্বারে অর্থ পাঠাতে পারেন।তাহলে দ্রুত সুস্থ হয়ে আপনাদের মাঝে ফিরে আসতে পারবো ইনশাল্লাহ।আপনাদের পাঠানো সাহায্যেই আমি দ্রুত সুস্থ হয়ে বাড়িতে ফিরতে চাই। তাই আপনারা আমার এই কষ্টের কথা বিবেচনা করে মন খুলে দিল খুলে সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিবেন । এটাই আশা করি সমাজের বিত্তবান থেকে সকল শ্রেণী পেশার মানুষের কাছে । এছাড়া আমার আর কিছুই চাওয়ার নেই।

No Comments


আরও পড়ুন