উহানের নাগরিকদের রক্ত পরীক্ষা করবে চীন


অথর
আর্ন্তজাতিক সংবাদদাতা   ডোনেট বাংলাদেশ
প্রকাশিত :১৩ অক্টোবর ২০২১, ৫:২০ অপরাহ্ণ | পঠিত : 139 বার
উহানের নাগরিকদের রক্ত পরীক্ষা করবে চীন

করোনাভাইরাসের উৎস জানতে উহানের হাজার হাজার নাগরিকের রক্ত পরীক্ষার প্রস্তুতি নিচ্ছে চীন। দেশটির কর্মকর্তাদের বরাত দিয়ে এ তথ্য জানিয়েছে সিএনএন। চীনের উহান থেকে করোনা বিশ্বব্যাপী ছড়িয়ে পড়ে এবং মহামারী আকার ধারণ করে, এমন অভিযোগ করে আসছে যুক্তরাষ্ট্রসহ বেশ কয়েকটি দেশ। করোনার উৎস জানার জন্য অনুসন্ধানে নামে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার (ডব্লিউএইচও) একটি টিমও। পরে প্রতিনিধি টিমের সদস্যরা জানান, ২০১৯ সালের ডিসেম্বরে চীনের হুবেই প্রদেশের উহানে করোনার সংক্রমণ অনেক বেশি ছড়ায়। সংক্রমণের মাত্রা যা ভাবা হয়েছিল, তার চেয়ে কয়েকগুণ বেশি ছিলো। তদন্তকারীরা সেসময় বলেন, তারা জরুরিভিত্তিতে উহান শহরের লাখো মানুষের রক্তের নমুনা পরীক্ষা করে দেখার সুযোগ চান। তবে চীন তখন তাদের সে অনুমতি দেয়নি। চলতি বছর ফেব্রুয়ারিতে ডব্লিউএইচও-র তদন্তকারী প্যানেল যে সম্ভাব্য উৎসের কথা জানায় সেগুলোর ওপর ভিত্তি করে কখন এবং কোথায় মানবদেহে ভাইরাসটি প্রবেশ করতে পারে তা শনাক্ত করে দুই লাখ মানুষের রক্তের নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে। উহানের ব্লাড সেন্টারে সংরক্ষণ করে রাখা হয়েছে এসব নমুনা। চীনের কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, দুই বছর ধরে রক্তের নমুনা সংরক্ষণ করা হচ্ছে, যদি যে কোনো সময় তথ্য প্রমাণের জন্য সেগুলোর দরকার পড়ে। ২০১৯ থেকে সংগ্রহ করা নমুনার মেয়াদ এবছর অক্টোবর ও নভেম্বরে দুই বছর হয়ে যাচ্ছে, এখনো অধিকাংশ বিশেষজ্ঞ মনে করেন এই ভাইরাস প্রথমে মানুষকেই সংক্রমিত করেছিল। চীনের জাতীয় স্বাস্থ্য কমিশনের এক কর্মকর্তা সিএনএনকে জানান, পরীক্ষার জন্য সব ধরনের প্রস্তুতি চলছে এবং এটির মেয়াদও প্রায় দুই বছর সময়সীমা অতিক্রম করছে। ইয়ানঝং হুয়াং নামে ফরেন রিলেশন কাউন্সিলের বিশ্ব স্বাস্থ্যবিষয়ক সিনিয়র এক ফেলো বলেন, এই নমুনাগুলো সঠিক সময় সম্পর্কে ধারণা পেতে সহায়তা করবে আমাদের যখন এটি ছড়িয়ে পড়ছিল। মৌরিন মিলার নামে কলম্বিয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের মহামারীবিষয়ক এক সহযোগী অধ্যাপক বলেন, এগুলো আমাদের জন্য গুরুত্বপূর্ণ ক্লু বহন করে। তিনি চীনের প্রতি আহ্বান জানান, বিদেশি বিশেষজ্ঞদের যেনো এই প্রক্রিয়া পর্যবেক্ষণের অনুমতি দেয়। তিনি আরও বলেন, যতক্ষণ না সঠিক পর্যবেক্ষণ করা হবে ততক্ষণ চীনের দেওয়া তথ্য কেউ বিশ্বাস করবে না। ডব্লিউএইচও-র তদন্ত টিমের সঙ্গে কাজ করা চীনের প্রতিনিধি দলের প্রধান লিয়াং ইয়াননিয়ান গত জুলাইয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে বলেছিলেন, চীন নমুনা পরীক্ষা করবে, চীনের বিশেষজ্ঞদের পাওয়া ফলাফল তারা অন্যদেরসহ বিদেশি বিশেষজ্ঞদেরও সরবরাহ করবে। ২০১৯ সালের ডিসেম্বরে চীনের উহানে প্রথম শনাক্ত হয় করোনা। এরপর দ্রুত দেশে দেশে ছড়িয়ে পড়ে ভাইরাসটি। গত বছরের ১১ মার্চ বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (ডব্লিউএইচও) করোনাকে ‘বৈশ্বিক মহামারী’ ঘোষণা করে। তখন থেকেই এর উৎস জানতে কাজ শুরু করেন বিশেষজ্ঞরা। দুই বছর হতে চললেও এখনও প্রশ্নের উত্তর মিলছে না কোথা থেকে এলো, করোনাভাইরাস।







Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Ok

আরও পড়ুন