এখনও বৈষম্যমুক্ত বাংলাদেশ গড়ে ওঠেনি: জিএম কাদের – ডোনেট বাংলাদেশ

এখনও বৈষম্যমুক্ত বাংলাদেশ গড়ে ওঠেনি: জিএম কাদের

ডেস্ক নিউজ
আপডেটঃ ১৮ ডিসেম্বর, ২০২১ | ৭:৪৯ 121 ভিউ
বিজয়ের ৫০ বছর পূর্ণ হলেও এখনও বৈষম্যমুক্ত বাংলাদেশ গড়ে ওঠেনি বলে মন্তব্য করেছেন জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান জিএম কাদের। তিনি বলেন, আজকে আমরা স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী পালন করছি। কিন্তু যে উদ্দেশ্যে আমাদের দেশের ৩০ লাখ মানুষ জীবন দিয়েছিল, দুই লক্ষ লাখ মা-বোন তাদের সম্ভ্রম হারিয়েছিল, তাদের প্রত্যাশা কি আমরা পূরণ করতে পেরেছি? মুক্তিযুদ্ধে বিজয়ের ৫০ বছর পূর্তিতে শনিবার ঢাকার জুরাইন রেল গেটে জাতীয় পার্টির এক সমাবেশে বক্তব্যে জিএম কাদের এসব কথা বলেন। জাতীয় পার্টি চেয়ারম্যান বলেন, পশ্চিম পাকিস্তানের কাছে আমাদের বিভিন্নভাবে বৈষম্যের শিকার হতে হয়েছে। এটা বাঙালি জাতি মেনে নিতে পারিনি। কিন্তু স্বাধীনতার ৫০ বছর পরে আমরা কি দেখছি, পশ্চিম পাকিস্তানি কায়দায় বৈষম্য কি শেষ

হয়েছে? আমাদের দেশের বৈষম্য দূর হয় নাই। সংসদে বিরোধীদলীয় উপনেতা জিএম কাদেরের অভিযোগ, জাতীয় পার্টি ক্ষমতা হারানোর পর যতগুলো সরকার এসেছে, তারা দলীয়করণ করেছে। এখন নির্বাচনে অংশ নিতে গিয়েও জাতীয় পার্টি বিভিন্ন বাধার মুখ পড়ছে। তিনি আরও বলেন, এই যে ইউপি নির্বাচন এবং জাতীয় সংসদের বাই ইলেকশন, এখানে অন্যরা অংশগ্রহণ করছে না, আমরা এই নির্বাচনগুলোতে অংশ নিচ্ছি। কিন্তু আমাদের প্রার্থীদের দাঁড়াতে দেওয়া হচ্ছে না, বিভিন্নভাবে নির্যাতন করা হচ্ছে। জিএম কাদের বলেন, সিরাজগঞ্জে আমাদের প্রার্থীকে মারধর করে তার কাপড়-চোপড় ছিঁড়ে ফেলা হয়েছে। আমরা খবর পেয়েছি, আমাদের একজন প্রার্থীকে চাপ প্রয়োগ করা হয়েছে মনোনয়ন প্রত্যাহার করার জন্য। তিনি বলেন, ধনী ও দরিদ্র্যের মধ্যে বৈষম্য হচ্ছে। আপনারা

দেখেন এক শ্রেণীর মানুষ হাজার হাজার কোটি টাকা বিদেশে পাচার করছে, দেশে-বিদেশে সম্পদের পাহাড় তৈরি করছে। আর এই দেশে দরিদ্র্য মানুষ না খেয়ে থাকে, বেকার সমস্যা দিন দিন বাড়ছে। বিদ্যুৎ গ্যাস, পানির বিল বাড়ানো হচ্ছে। কাজেই স্বাধীনতার জন্য এতগুলো মানুষ জীবন দিয়েছে, তার সুফল আমরা পাই নাই। জাতীয় পার্টির কো-চেয়ারম্যান আবু হোসেন বাবলার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত এই সমাবেশে দলের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য সাইফুদ্দিন আহমেদ মিলন, ঢাকা মহানগর সাধারণ সম্পাদক জহিরুল আলম রুবেল বক্তব্য রাখেন।

দৈনিক ডোনেট বাংলাদেশ সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ট্যাগ:

সংশ্লিষ্ট সংবাদ:


শীর্ষ সংবাদ:
কেন্দুয়ায় অসহায় রবিদাস সম্প্রদায়ের লোকজনকে শাড়ি-লুঙ্গি উপহার দিলেন আওয়ামী লীগ নেতা তাপস ব্যানার্জী কেন্দুয়া গোপালপুর উচ বিদ্যালয় এর ম্যানেজিং কমিটির নির্বাচন সম্পন্ন আজ বিজয়া দশমীতে প্রতিমা বিসর্জনের মধ্য দিয়ে শেষ হচ্ছে শারদীয় দূর্গাপূজা জেলা পরিষদ নির্বাচনে প্রার্থীদের ব্যয়সীমা বেঁধে দিলো ইসি ‘দেশকে ভালো অবস্থানে রাখতে বর্তমান সরকারের বিকল্প নেই’ রাশিয়া-কাজাখস্তানের মধ্যে কূটনৈতিক উত্তেজনা শ্বাসরুদ্ধকর ম্যাচে অস্ট্রেলিয়ার জয় বিদ্যুৎ বিপর্যয় নিয়ে যা বললেন মির্জা ফখরুল ভিসা জটিলতায় সাকিব কাঁটাতারের বেড়া ভালোবাসা ভাগ করতে পারেনি ‘পুলিশের ওপর ক্ষুব্ধ হয়ে’ নিজের বাইকে আগুন দিলেন যুবক লালপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসকের ভূমিকায় অ্যাম্বুলেন্স চালক রানীশংকৈলে সনাতন ধর্মালম্বীদের বিজয়া দশমির মধ‍্যে দিয়ে শারদীয় দূর্গা পূজা সম্পর্ন বাগমারায় দুর্গোৎসব উপলক্ষে গণসংবর্ধনা সিরাজগঞ্জের চৌহালীর গুচ্ছগ্রামের ঘরগুলো সবুজে ঘেরা আর শান্তির নীড় নিহত সেনা সদস্য শরীফুলের সিরাজগঞ্জের বাড়িত চলছ শোকের মাতম রসায়নে নোবেল পেলেন তিন বিজ্ঞানী বিল গেটসের সঙ্গে বিচ্ছেদের এক বছর পর মুখ খুললেন মেলিন্ডা রাশিয়ার ওপর নতুন নিষেধাজ্ঞা নিয়ে ঐক্যমত্যে ইইউ খুলনায় তুলাপট্টির আগুন নিয়ন্ত্রণে, পুড়ল ৭ দোকান