কৃষি উপকরণের উচ্চমূল্য: জরুরি ভিত্তিতে দৃষ্টি দেওয়া প্রয়োজন – ডোনেট বাংলাদেশ

কৃষি উপকরণের উচ্চমূল্য: জরুরি ভিত্তিতে দৃষ্টি দেওয়া প্রয়োজন

ডেস্ক নিউজ
আপডেটঃ ১৫ নভেম্বর, ২০২২ | ৯:০৮ 23 ভিউ
সার, ডিজেল. কীটনাশক, বীজসহ বিভিন্ন ধরনের কৃষি উপকরণের দাম অস্বাভাবিক বৃদ্ধি পাওয়ায় দেশে খাদ্যপণ্যের উৎপাদন ব্যাহত হওয়ার আশঙ্কা দেখা দিয়েছে। অথচ বিভিন্ন পূর্বাভাসে বলা হচ্ছে, বিদ্যমান বৈশ্বিক সংকটের সবচেয়ে বড় প্রভাবটি পড়বে আগামী বছর। এ কথা মাথায় রেখে যে বিষয়টি নিশ্চিত করা সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ, তা হলো খাদ্যনিরাপত্তা। এক্ষেত্রে সর্বাগ্রে দৃষ্টি দেওয়া প্রয়োজন অভ্যন্তরীণ খাদ্যপণ্য উৎপাদন বাড়ানোর দিকে। এ জন্য কৃষকের হাতে সঠিক সময়ে বীজ, সার, কীটনাশক ও জ্বালানির সরবরাহ নিশ্চিত করা জরুরি। পাশাপাশি যেসব খাদ্যপণ্য আমদানি করতে হয়, সেগুলোও যথাসময়ে দেশে পৌঁছানো প্রয়োজন। এসব বিষয়ে যথাযথ পদক্ষেপ গ্রহণের জন্য প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা নির্দেশনাও দিয়েছেন। কিন্তু তারপরও কৃষি উপকরণ সহজলভ্য হয়নি। অনুসন্ধানে

কৃষকের দুর্দশার ভয়াবহ চিত্র পাওয়া গেছে। কৃষি উপকরণের অস্বাভাবিক মূল্যের কারণে কৃষকরা দিশেহারা হয়ে পড়েছেন। সেই সঙ্গে উৎপাদন খরচ বেড়ে যাওয়ার আশঙ্কা দেখা দিয়েছে, যার প্রভাব পড়বে ভোক্তা পর্যায়ে। এ অবস্থায় জরুরি ভিত্তিতে এদিকে সরকারের দৃষ্টি দেওয়া উচিত বলে মনে করি আমরা। বিশেষ করে সার, কীটনাশকসহ কৃষি উপকরণের দাম নিয়ন্ত্রণে জরুরি পদক্ষেপ নিতে প্রধানমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ দরকার বলে মনে করছেন বিশেষজ্ঞ ও কৃষিবিদরা। বস্তুত কৃষি উৎপাদন বাড়াতে হলে সবার আগে প্রয়োজন কৃষকদের উৎসাহিত করা। কিন্তু দেশে কৃষিপণ্য বিপণনের যে ব্যবস্থা গড়ে উঠেছে, তা কৃষকদের বরং নিরুৎসাহিতই করে অনেক ক্ষেত্রে। অনেক সময় কৃষকরা উৎপাদিত পণ্যের যে দাম পান, তা উৎপাদন খরচের সমান হয়ে

দাঁড়ায়। লাভ হয় মূলত মধ্যস্বত্বভোগীদের। এ ব্যবস্থা চলে আসছে যুগের পর যুগ। বর্তমানে যখন দেশে খাদ্য উৎপাদন বাড়ানো জরুরি হয়ে পড়েছে, তখন এ বিপণন ব্যবস্থায় একটা পরিবর্তন আনার সুযোগ এসেছে বলে মনে করি আমরা। এটি হতে হবে এমন একটি ব্যবস্থা, যেখানে কৃষক সরাসরি ভোক্তাদের কাছে তাদের উৎপাদিত পণ্য বিক্রি করতে পারবেন। এতে কৃষকরা যেমন লাভবান হবেন, তেমনি উপকৃত হবেন ভোক্তারাও। আমরা মনে করি, সঠিক সময়ে সঠিক কাজটি করা সবচেয়ে জরুরি। কাজেই কৃষি উপকরণে প্রয়োজনীয় ভর্তুকি প্রদান; খাদ্যপণ্য, জ্বালানি ও সার আমদানির ক্ষেত্রে এলসি খোলা-এসব বিষয়ে সরকার ও সংশ্লিষ্টদের দ্রুত পদক্ষেপ নিতে হবে।

দৈনিক ডোনেট বাংলাদেশ সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ট্যাগ:

সংশ্লিষ্ট সংবাদ:


শীর্ষ সংবাদ:
নাগেশ্বরীরতে ম্যাগনেট পিলার দিয়ে প্রতারণার অভিযোগে খেলনা পিস্তলসহ এক নারী আটক। নোয়াখালীতে তিন মামলায় জামিন পেলেন বিএনপির কেন্দ্রীয় যুগ্ম মহাসচিব খোকন কুড়িগ্রামে এলজিইডির নির্বাহী প্রকৌশলীকে স্যার না বলে ভাইয়া বলে সম্বোধন করায় সাংবাদিকের উপর চড়াও তারাকান্দা উপজেলা আওয়ামীলীগের বর্ধিত সভা নোয়াখালীতে ইটভাটা আইন সংশোধনের দাবিতে মানববন্ধন নোয়াখালীতে গৃহবধূ হত্যা:স্বামীর মৃত্যুদণ্ড বাগমারায় জেলা কৃষক লীগের সম্মেলন স্থল পরিদর্শন চাতরার দোলায় দিনব্যাপী মাছ ধরা বাওয়া উৎসবে মানুষের ঢল নাটোরে ইটভাটা মলিকদের মানববন্ধন বেনাপোলে ৯৪ লাখ টাকার স্বর্ণ উদ্ধার বেনাপোলে শিশু ধর্ষণের অভিযোগে চটপটি বিক্রেতা গ্রেফতার সিরাজগঞ্জের বেলকুচিতে জেলা প্রশাসক ড.ফারুক আহাম্মদকে বিদায়ী সংবর্ধনা সিরাজগঞ্জের সলঙ্গায় আগুনে পুড়লো ৪ দোকান, ৩৫ লাখ টাকা ক্ষতি মাগুরা রিপোর্টার্স ইউনিটির সাথে মাগুরা পুলিশ সুপারের মতবিনিময় ধানক্ষেত থেকে মুয়াজ্জিনের হাত-পা বাঁধা লাশ উদ্ধার আপনারা ধরছেন চুনোপুঁটি, রাঘববোয়ালদের ধরবে কে: দুদককে হাইকোর্ট জ্যাকুলিনের জবানবন্দি ‘ফখরুল সাহেব, মানুষকে ধোঁকা দিয়ে বোকা বানাতে পারবেন না’ ইউক্রেন বিশ্বের খাদ্য নিরাপত্তা দিয়ে যাবে: জেলেনস্কি যে কারণে হচ্ছে না পদ্মা-মেঘনা বিভাগ