ছেলেকে দেখার অনুমতি মিলছে না শাহরুখ-গৌরীর!


অথর
বিনোদন ডেক্স   সারা বিশ্ব
প্রকাশিত :১২ অক্টোবর ২০২১, ৭:০৫ অপরাহ্ণ | পঠিত : 130 বার
ছেলেকে দেখার অনুমতি মিলছে না শাহরুখ-গৌরীর!

ছেলে কারাগারে থাকায় ভেঙে পড়েছেন বলিউড বাদশাহ শাহরুখ খান। অসহায় বাবার ন্যায় তাঁর ঠিকমতো ঘুম হচ্ছে না, খাওয়াদাওয়াও ঠিকমতো করতে পারছেন না—এমন খবর প্রকাশের পর উৎকণ্ঠায় খানভক্তরা। এবার নতুন খবর, ছেলেকে দেখার জন্য ব্যাকুল হয়ে আছেন শাহরুখ খান ও গৌরী খান। কিন্তু সাক্ষাতের অনুমতি মিলছে না। এ খবর প্রকাশ করেছে বলিউডভিত্তিক প্রভাবশালী সংবাদমাধ্যম বলিউড হাঙ্গামা। মাদককাণ্ডে শাহরুখ-গৌরীর বড় ছেলে আরিয়ান খান এখন মুম্বাইয়ের আর্থার রোডের কারাগারে রয়েছেন। গ্রেপ্তারের পর থেকে শাহরুখের পরিবারের কোনও সদস্য এখনও আরিয়ানের সঙ্গে দেখা করতে পারেননি। খান পরিবারের একজন ঘনিষ্ঠ বন্ধু পোর্টালটিকে বলেছেন, তাঁরা ছেলের সঙ্গে দেখা করার জন্য প্রাণপণ চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন। কিন্তু সাক্ষাতের অনুমতি পাচ্ছেন না। ছেলের জন্য খুবই উদ্বিগ্ন গৌরী খান। ওই ঘনিষ্ঠ বন্ধুর মতে, ছেলের সঙ্গে দেখা করা মা-বাবার মৌলিক অধিকার। আরিয়ানের কোনও অপরাধমূলক কাজে জড়িত থাকার প্রমাণ নেই। আরিয়ানের আচরণ ভালো এবং খুবই বিনয়ী। এমন দুরবস্থায় হতবাক ওই বন্ধু। স্ক্রিনশট টাইমস অব ইন্ডিয়ার প্রতিবেদন অনুযায়ী, আরিয়ানের আইনজীবী সতীশ মানশিন্ডে নিশ্চিত করেছেন, আগামীকাল বুধবার ভারতীয় সময় সকাল ১১টায় মুম্বাই সেশন কোর্টে জামিন শুনানি হবে। আরিয়ানের পক্ষে জামিন শুনানির আবেদন করেছেন আইনজীবী অমিত দেশাই। একই মামলায় অভিযুক্ত আরবাজ মার্চেন্ট, মোহক জসওয়ার, নূপুর সতিজা ও মুনমুন ধমেচারও জামিন শুনানি হবে আগামীকাল। মাদককাণ্ডে দীর্ঘ ১৬ ঘণ্টা জেরার পর ৩ অক্টোবর বিকেলে আরিয়ান খানকে গ্রেপ্তার দেখায় এনসিবি। আরিয়ান খানের বিরুদ্ধে ভারতীয় দণ্ডবিধি এনডিপিএসের ৮সি, ২০, ২৭ ও ৩৫ ধারায় মামলা করা হয়েছে। ২৩ বছর বয়সী আরিয়ান খানের পক্ষে আইনি লড়াই চালাচ্ছেন মুম্বাইয়ের অন্যতম শীর্ষ আইনজীবী সতীশ মানশিন্ডে। মুম্বাইয়ের উপকূলে একটি প্রমোদতরীতে চলমান মাদক পার্টি থেকে ২ অক্টোবর রাতে আরিয়ান খানসহ মোট আট জনকে আটক করে নারকোটিক্স কন্ট্রোল ব্যুরো (এনসিবি)। যাত্রীর ছদ্মবেশে কর্ডেলিয়া নামে বিলাসবহুল ওই প্রমোদতরীতে চেপে বসেছিলেন এনসিবির গোয়েন্দারা।







Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Ok