বাঘপ্রেমীদের আশার আলো দেখাচ্ছে সুন্দরবন – ডোনেট বাংলাদেশ

বাঘপ্রেমীদের আশার আলো দেখাচ্ছে সুন্দরবন

ডেস্ক নিউজ
আপডেটঃ ২৯ জুলাই, ২০২২ | ১০:৪২ 29 ভিউ
সারাবিশ্বে বাঘের টিকে থাকা নিয়ে যখন পরিবেশবাদীরা নানা সংশয় প্রকাশ করছেন, তখন বাঘপ্রেমীদের আশার আলো দেখাচ্ছে সুন্দরবন। বিশ্বখ্যাত রয়েল বেঙ্গল টাইগারের আবাসস্থল সুন্দরবন। ধারণা করা হচ্ছে, এবার সুন্দরবনে বাঘের সংখ্যা বৃদ্ধি পাবে। এ প্রেক্ষাপটে শুক্রবার ২৯ জুলাই বাঘ রয়েছে বিশ্বের এমন ১৩টি দেশে (বাংলাদেশসহ) নানা আয়োজনে ‘বিশ্ব বাঘ দিবস’ পালিত হয়। এ বিষয়ে বন্যপ্রাণী ব্যবস্থাপনা ও প্রকৃতি সংরক্ষণ বিভাগ, খুলনা বিভাগীয় বন কর্মকর্তা নির্মল কুমার পাল বলেন, সর্বশেষ গণনায় সুন্দরবনে বাঘের সংখ্যা ছিল ১১৪। এ বছরের শেষের দিকে আবারও বাঘ গণনা করা হবে। আমরা আশা করছি, সুন্দরবনে এবার বাঘের সংখ্যা বাড়বে।’ পৃথিবীতে বাঘের মোট নয়টি উপপ্রজাতির মধ্যে গত শতাব্দীতে তিনটি

উপপ্রজাতি বিলুপ্ত হয়ে গেছে বলে তিনি উল্লেখ করেন। খুলনা অঞ্চলের বন সংরক্ষক মিহির কুমার দে জানান, ‘গত ৩/৪ মাসে সুন্দরবনের একাধিক স্থানে পর্যটকরা বাঘের দেখা পেয়েছেন। এমনকি, একসঙ্গে ৩/৪টি বাঘ দেখা গেছে, যা খুবই আশাব্যাঞ্জক। বিশ^খ্যাত রয়েল বেঙ্গল টাইগারের আবাসস্থল সুন্দরবন। সর্বশেষ ২০১৮ সালের জরিপমতে সুন্দরবনে বাঘের সংখ্যা ছিল ১১৪। এখন এ সংখ্যা কতটা বেড়েছে, তা জরিপ না হওয়া পর্যন্ত সঠিক বলা যাবে না। এ জন্য প্রায় ৩৬ কোটি টাকা ব্যয়ে সুন্দরবন বাঘ সংরক্ষণ প্রকল্পের আওতায় আগামী নবেম্বর থেকে ক্যামেরা ট্র্যাপিংয়ের (ফাঁদ) মাধ্যমে বাঘ গণনা শুরু করার পরিকল্পনা রয়েছে। পাশাপাশি গণনা করা হবে বাঘের খাদ্য হিসেবে বিবেচিত বনে থাকা হরিণ

ও শূকরের সংখ্যাও। অন্তত দুটি বাঘের শরীরে স্যাটেলাইট কলার স্থাপন ও মনিটরিং করা হবে। এতে সুন্দরবনের বাঘের আচরণ, গতিবিধি, বাঘের পরজীবীর সংক্রমণ ও অন্যান্য ব্যাধি এবং এর মাত্রা নির্ণয়, উপাত্ত সংগ্রহ ও বিশ্লেষণ করা যাবে।’ ইতোমধ্যে গত ২৩ মার্চ বন ও জলবায়ু পরিবর্তন মন্ত্রণালয় থেকে প্রকল্পটির প্রশাসনিক অনুমোদন দিয়েছে বলে তিনি উল্লেখ করেন। এ বিষয়ে পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তন মন্ত্রণালয়ের উপমন্ত্রী হাবিবুন নাহার বলেন, ‘বিশ্ব ঐতিহ্য সুন্দরবন জীববৈচিত্র্যের আধার। মায়ের মতো নানা দুর্যোগের হাত থেকে সুন্দরবন আমাদের সুরক্ষা দেয়। এ বন যেমন আমাদের গর্ব, তেমনি এ বনের গর্ব বিশ্বখ্যাত রয়েল বেঙ্গল টাইগার।’ তাই সুন্দরবনের জীববৈচিত্র্য সুরক্ষায় টেকসই উন্নয়নসহ আধুনিক ব্যবস্থাপনায়

প্রয়োজনীয় সকল পদক্ষেপ গ্রহণ করা হচ্ছে। এ ব্যাপারে প্রধানমন্ত্রী খুবই আন্তরিক বলে তিনি উল্লেখ করেন। পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তনমন্ত্রী মোঃ শাহাব উদ্দিন জানান, সুন্দবনের বন্যপ্রাণী অভয়ারণ্যের পরিমাণ পূর্বের ২৩ শতাংশ থেকে বৃদ্ধি করে ৫২ শতাংশ করা হয়েছে। এ বনের বণ্যপ্রণী ও বনজ সম্পদ রক্ষায় ২০১২ সালে বন অধিদফতর, কোস্ট গার্ড ও র‌্যাবের সমন্বয়ে টাস্কফোর্স গঠন করা হয়। এখন সুন্দরবন দুষ্কৃতকারী ও দস্যুমুক্ত। আমাদের জাতীয় পশু বাঘ রক্ষায় ‘Bangladesh Tiger Action Plan (২০১৮-২০২৭)’ প্রণয়ন করা হয়েছে। সুন্দরবনে অপরাধ বন্ধে বনকর্মীদের বিশেষ প্রশিক্ষণ প্রদান করে দ্রুতগামী জলযান ও ড্রোনের মাধ্যমে স্মার্ট (SMART-Special Monitoring And Reporting Tool) টহল চলছে। সুন্দরবনের বাঘ সংরক্ষণের জন্য

৪৯টি ভিলেজ টাইগার রেসপন্স টিম গঠন করা হয়েছে। এ ছাড়া আরও বেশ কিছু কার্যকর পদক্ষেপ গ্রহণ করা হচ্ছে। ফলে আশা করছি, এবার সুন্দরবনে বাঘের সংখ্যা বৃদ্ধি পাবে।’ সুন্দরবনের বৃহৎ অংশ বাগেরহাট জেলার অন্তর্ভুক্ত। এখানে সুন্দরবনের ৪টি রেঞ্জের ২টি (শরণখোলা ও চাঁদপাই রেঞ্জ) রয়েছে। বন বিভাগ নানা আয়োজনে বাঘ দিবস’ পালন করছে। সুন্দরবন পূর্ব বন বিভাগের সূত্রমতে, ২০০৪ সালে পাগমার্ক পদ্ধতিতে জরিপ অনুযায়ী সুন্দরবনে ৪৪০টি বাঘ ছিল। এরপর ২০১৫ সালে ক্যামেরা ট্র্যাপিং পদ্ধতিতে জরিপে ১০৬ এবং সর্বশেষ ২০১৮ সালের ১১৪টি হয়। এদিকে, ২০০১ থেকে ২০২২ সালের জুন পর্যন্ত সুন্দরবনের অন্তত ৪৬টি বাঘের মৃত্যু হয়েছে। এর মধ্যে স্বাভাবিক মৃত্যু হয়েছে ৮টি বাঘের, বিভিন্ন সময়

দুষ্কৃতকারীদের হাতে ১৩টি, লোকালয়ে আসায় জনগণের পিটুনিতে মৃত্যু হয়েছে ৫টি, আর ২০০৯ সালে ভয়ঙ্কর সিডরে মৃত্যু হয়েছে একটি বাঘের। এ ছাড়া বিভিন্ন সময় চোরাশিকারিদের হাতে মারা যাওয়া ১৯টি বাঘের চামড়া উদ্ধার হয়েছে। তাদের হিসাব অনুযায়ী সর্বশেষ জরিপের পরে অন্তত ৮টি বাঘের মৃত্যু হয়েছে। কিন্তু কি পরিমাণ বাঘের জন্ম হয়েছে, সে তথ্য বন বিভাগের কাছে নেই। তারপরও বন বিভাগ, বাঘ সংরক্ষণ ও সুন্দরবন সংশ্লিষ্টরাও মনে করছেন সেখানে বাঘ বেড়েছে। কারণ, হিসেবে সাম্প্রতিক সময়ে সুন্দরবনে বাঘের আনাগোনা বৃদ্ধি পাওয়া ও বাঘের দেখা পাওয়াকে উল্লেখ করেছেন অনেকে। চলতি বছরের ১২ মার্চ সুন্দরবন পূর্ব বন বিভাগের শরণখোলা রেঞ্জের ছিটা কটকা খালে একসঙ্গে ৪টি বাঘের দেখা

পেয়েছিলেন পর্যটকরা। তখন দর্শনার্থীদের দেখা এই বাঘের দৃশ্য ভাইরালও হয়েছিল। এর আগে ২৪ ফেব্রুয়ারি বনরক্ষীরা কটকা এলাকায় একসঙ্গে ৩টি বাঘ দেখতে পেয়েছিলেন। এ ছাড়াও বিভিন্ন সময় শরণখোলা ও মোংলার লোকালয়ে বাঘ আসার খবর রয়েছে বন বিভাগের কাছে। শরণখোলা উপজেলার ভিলেজ টাইগার রেসপন্স টিমের (ভিটিআরটি) লিডার আলম হাওলাদার বলেন, সাম্প্রতিক সময়ে বেশ কয়েকবার সুন্দরবনের বাঘ শরণখোলার লোকালয়ে এসেছে। আগে কখনও এতবার বাঘ আসার কবর পাওয়া যায়নি। সুন্দরবনে আমরাও কয়েকবার বাঘ দেখেছি। কটকা এলাকায় বাঘের বাচ্চাও দেখেছি একাধিকবার।’ পর্যটক ফরিদী নুমানের ভাষায়, ‘আমরা কয়েকজন লঞ্চে সুন্দরবন ভ্রমণে গিয়েছিলাম। গত ৩১ মার্চ লঞ্চ থেকে নেমে ট্রলারে বনের কটকা এলাকায় একটি খালের মধ্যে ঢুকি। এ সময়

গাছের ডালে একটি বাঘ দেখতে পাই, আমি তো অবাক।’ এর আগে গত ১২ মার্চ সুন্দরবনের ছিটা কটকা খালপাড়ে একসঙ্গে চারটি বাঘ দেখেছিলেন অপর একদল পর্যটক। সুন্দরবনে অভূতপূর্ব এ দৃশ্য দেখে উচ্ছ্বসিত তারা ভিডিও করেন। তার কয়েক দিন আগে গত ২৪ ফেব্রুয়ারি পূর্ব বণ্যপ্রাণী অভয়ারণ্যে একসঙ্গে মা ও দুটি বাচ্চাসহ মোট তিনটি বাঘের দেখা পেয়েছিলেন বন্যপ্রাণী ব্যবস্থাপনা ও প্রকৃতি সংরক্ষণ বিভাগের খুলনা কার্যালয়ের মৎস্য বিশেষজ্ঞ মফিজুর রহমান চৌধুরী। এরা প্রায় সকলে উচ্ছ্বসিত অনুভূতি প্রকাশ করেন। তাদের ভাষায়, একাধিকবার সুন্দরবনে ভ্রমণ করেও বাঘের দেখা পাননি অসংখ্য পর্যটক। অথচ, এ বছর একের পর এক বাঘের দেখা পাচ্ছেন পর্যটকরা। তাও আবার একসঙ্গে ৩-৪টি। এর ফলে সুন্দবনপ্রেমী পরিবেশবাদীদের মধ্যে নতুন আশার সঞ্চার হয়েছে। একই উপজেলার বনজীবী আলমগীর হোসেন বলেন, দীর্ঘদিন ধরে সুন্দরবনে যাই, কিন্তু তেমন কোন সময় বাঘের দেখা পাইনি। গেল বছর শরণখোলা রেঞ্জের চাপড়াখালি, সুপতি ও আলী বান্দা এই তিন এলাকায় আমি বাঘ দেখেছি। বাচ্চাসহ বাঘও দেখেছি তখন। আগে কখনও এত অল্প সময়ে কয়েকবার বাঘের দেখা পাইনি। এ ছাড়া বাঘের গর্জনও শুনেছি কয়েকবার। সুন্দরবন পূর্ব বিভাগের বন কর্মকর্তা (ডিএফও) মোহাম্মদ বেলায়েত হোসেন বলেন, ‘বন বিভাগ দীর্ঘদিন ধরে এখানে বাঘ রক্ষায় কাজ করছে। এর অংশ হিসেবে আমরা সুন্দরবনে টহল জোরদার করেছি। ফলে সুন্দরবনে চোরা শিকারিদের তৎপরতা কমেছে। সর্বশেষ করোনা মহামারীতে একসঙ্গে দীর্ঘদিন সুন্দরবনে প্রবেশ বন্ধ ছিল। তখন সুন্দরবনের প্রাণপ্রকৃতি নিজেদের মতো করে বেড়েছে। ওই সময়ে বাঘেরাও তাদের ইচ্ছেমতো বনের মধ্যে বিচরণ করেছে। তখন কয়েকবার বনরক্ষীরা বাঘ দেখেছেন। আমাদের সচেতনতামূলক কার্যক্রম, প্রতিবছর ১ জুলাই থেকে ৩১ আগস্ট পর্যন্ত প্রবেশ বন্ধ থাকায় সুন্দরবনের প্রাণপ্রকৃতি অনেক ভালভাবে বেড়ে ওঠে। করোনা মহামারী থেকে এখন পর্যন্ত কয়েকবার সুন্দরবনের বিভিন্ন জায়গায় বাঘ ও বাঘের বাচ্চা দেখেছেন বনরক্ষী, স্থানীয় বাসিন্দা ও দর্শনার্থীরা। এসব কারণে আমরা মনে করছি সুন্দরবনে এবার বাঘের সংখ্যা বাড়বে।’ প্রসঙ্গত, সুন্দরবনে পরিবেশবান্ধব অবকাঠামো নির্মাণ, গবেষণা এবং বনজীবীদের আর্থ-সামাজিক উন্নয়নে এখন প্রায় ২শ’ কোটি টাকা ব্যয়ে বিভিন্ন প্রকল্প চলমান রয়েছে। টেকসই বন ব্যবস্থাপনার লক্ষ্যে সুন্দরবনের সুরক্ষা প্রকল্পের আওতায় ১শ’ ৫৭ কোটি ৮৭ লাখ টাকা ব্যয়ে অবকাঠামো নির্মাণ ও গবেষণা কার্যক্রম শুরু হয়েছে। এ ছাড়া ১শ’ ২৭ কোটি ৯২ লাখ টাকা ব্যয়ে ‘সীলস প্রকল্প’-এর আওতায় ২০১০ থেকে ২০১৫ সালের মধ্যে অবকাঠামো নির্মাণ ও সংস্কার, বননির্ভরশীল মানুষের বিকল্প কর্মসংস্থান সৃষ্টি, প্রশিক্ষণসহ নানামুখী কার্যক্রম বাস্তবায়ন করা হয়। সুন্দরবনে ইকোট্যুরিজম সম্প্রসারণ ও উন্নয়নে ২৫ কোটি টাকার প্রকল্প গ্রহণ করা হয়েছে। যার আওতায় করমজল, দুবলা, হারবারিয়া, কটকা, হিরণপয়েন্ট (নীলকমল), কলাগাছিয়া ও কচিখালীতে ৭টি ইকোট্যুরিজম কেন্দ্রের উন্নয়ন করা হচ্ছে। এ ছাড়া এ বনের আন্দারমানিক, আলীবান্দা, কালাবগী ও শেখেরটেকে নতুন চারটি পর্যটনকেন্দ্র নির্মাণ হচ্ছে। বণ্যপ্রাণী, বনজীবী ও বনকর্মীদের তীব্র পানীয়-জলের সঙ্কট নিরসনে টেকসই বন ব্যবস্থাপনার লক্ষ্যে ৫ কোটি টাকা ব্যয়ে ৮০টি পুকুর পুনর্খনন, ৪টি নতুন খনন এবং ৭০টি পাকা ঘাট নির্মাণ করা হচ্ছে। এর মধ্যে পূর্ব বন বিভাগে রয়েছে ৫০টি পুনর্খনন ও ৩টি নতুন খনন। শরণখোলায় বর্ণাঢ্য আয়োজন ॥ সংবাদদাতা, শরণখোলা, বাগেরহাট থেকে জানান, ‘বাঘ আমাদের অহঙ্কার, রক্ষার দায়িত্ব সবার’- এই প্রতিপাদ্য নিয়ে শরণখোলায় বর্ণাঢ্য আয়োজনে বিশ্ব বাঘ দিবস পালিত হয়েছে। দিবসটি উপলক্ষে শুক্রবার সকালে সুন্দরবন সংলগ্ন শরণখোলা বাজারে র‌্যালি ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। সুন্দরবন পূর্ব বন বিভাগ শরণখোলা রেঞ্জের বনরক্ষীরা স্থানীয় প্রদীপন ঘুর্ণিঝড় আশ্রয়কেন্দ্রে এ অনুষ্ঠানের আয়োজন করে। রেঞ্জ কর্মকর্তা মোঃ শহিদুল ইসলামের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন শরণখোলা উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ নুর ই আলম সিদ্দিকী। অনুষ্ঠানে সুন্দরবন সুরক্ষা সহ-ব্যবস্থাপনা কমিটি, বাঘ বন্ধু, ভিলেজ টাইগার রেসপন্স টিম (ভিটিআরটি), কমিউনিটি প্যাট্রোলিং গ্রুপ (সিপিজি), স্থানীয় পিপলস ফোরাম ও সুন্দরবনের ওপর নির্ভরশীল বনজীবীরা উপস্থিত ছিলেন। স্টাফ রিপোর্টার, সাতক্ষীরা থেকে জানান, ‘বাঘ আমাদের অহঙ্কার, রক্ষার দায়িত্ব সবার’ এই প্রতিপাদ্যকে সামনে রেখে শুক্রবার সাতক্ষীরার শ্যামনগরে বিশ্ব বাঘ দিবস পালিত হয়েছে। শ্যামনগর উপজেলা প্রসাশন ও বন বিভাগের আয়োজনে দিবসটি উপলক্ষে শুক্রবার সকালে পদযাত্রা ও আলোচনা সভার আয়োজন করা হয়। শ্যামনগর উপজেলা পরিষদ চত্বর থেকে বর্ণাঢ্য পদযাত্রাটি শুরু হয়ে পরে উপজেলা পরিষদ সম্মেলন কক্ষে অনুষ্ঠিত আলোচনা সভায় মিলিত হয়। উপজেলা নির্বাহী অফিসার আকতার হোসেনের সভাপতিত্বে বাঘ দিবসের আলোচনা সভায় মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ের ফরেস্ট্রি এ্যান্ড উড টেকনোলজি বিভাগের অধ্যাপক ওয়াছিউল ইসলাম। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন সাতক্ষীরা-৪ আসনের সংসদ সদস্য এসএম জগলুল হায়দার। বিশেষ অতিথি হিসেবে সাতক্ষীরার অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট মোহাম্মদ রেজা রশিদ, পশ্চিম সুন্দরবন সাতক্ষীরা রেঞ্জের সহকারী বন সংরক্ষক এ কে এম ইকবাল হোসাইন চৌধুরী, এম এ হাসান, উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান সাঈদ-উ-জ্জাামান, প্রেসক্লাব সভাপতি জি এম আকবার কবির প্রমুখ। এ সময় বিভিন্ন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের শিক্ষক-কর্মচারী ও ছাত্র-ছাত্রীদের পাশাপাশি জনপ্রতিনিধি, সংবাদকর্মী, উপজেলা প্রশাসন ও বন বিভাগের কর্মকর্তা-কর্মচারীরা বাঘ দিবসের র‌্যালি ও আলোচনা সভায় অংশ নেন।

দৈনিক ডোনেট বাংলাদেশ সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ট্যাগ:

সংশ্লিষ্ট সংবাদ:


শীর্ষ সংবাদ:
অর্থ পাচার দুর্নীতি লুটপাটে বাড়ছে মূল্যস্ফীতি সারা দেশে ব্যাংকের শাখা পর্যায়ে ডলার লেনদেনের সুযোগ ব্রয়লার মুরগি ২শ টাকা কেজি পেঁয়াজের হাফ সেঞ্চুরি এক ট্রলারে ধরা পড়ল ৬০ মণ ইলিশ, ১৪ লাখে বিক্রি তিন সেকেন্ডেই পালটে দেয় মোবাইল ফোনের আইএমইআই নম্বর সন্তানকে বিক্রির জন্য বাজারে তুললেন মা! বিদেশি চাপে সরকার বিক্ষোভ সমাবেশে ঝামেলা করছে না: মির্জা ফখরুল রাজনীতিতে সক্রিয় হচ্ছেন সোহেল তাজ চলমান সংকট মোকাবিলায় ৬ মাসের প্যাকেজ গ্রহণের প্রস্তাব জাসদের শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে সাপ্তাহিক ছুটি দুদিন করার চিন্তা বাংলাদেশের মানুষ সুখে আছে, বেহেশতে আছে: পররাষ্ট্রমন্ত্রী কৃষ্ণ সাগরে কমে গেছে রাশিয়ার বিমান বহরের ক্ষমতা সরকার হটাতে সব দলকে এক হয়ে আন্দোলন করতে হবে: মান্না আ.লীগ মাঠে নামলে বিএনপি অলিগলিও খুঁজে পাবে না: কাদের ‘জন্মদিন পালনের কথা বলে হোটেলে এনে নারী চিকিৎসককে খুন’ নির্বাচিত হয়েও ফখরুলের সংসদে না যাওয়া নিয়ে যা বললেন কাদের ইরানে ড্রোন প্রশিক্ষণ নিচ্ছে রাশিয়া: যুক্তরাষ্ট্র নাটোরে বিএনপির বিক্ষোভ সমাবেশে পুলিশের বাঁধায় পন্ড মাগুরায় জেলা পরিষদের তৈরি স্থাপনা ভেঙ্গে দিল সড়ক বিভাগ শহরে আরও বাড়বে সংসদীয় আসন!