ভাসানচরে হচ্ছে পাঁচ তারকা হোটেল - ডোনেট বাংলাদেশ

নোয়াখালীর বিচ্ছিন্ন দ্বীপ উপজেলা হাতিয়ার ভাসানচরে তৈরি হচ্ছে পাঁচ তারকা মানের হোটেল। জাতিসংঘের বিভিন্ন সংস্থার কর্মকর্তাদের ভাসানচরমুখী হওয়ায় তাদের জন্য উত্তরপ্রান্তে তৈরি করা হচ্ছে এই হোটেল।

সরেজমিনে দেখা যায়, ভাসানচরে স্টিল স্ট্রাকচারে তোলা হোটেল ও আবাসিক ভবনের পাশেই চলছে আন্তর্জাতিক মানের সুইমিংপুল, জিমনেশিয়াম এবং টেনিস কোর্ট তৈরির কাজ। পাঁচ তারকা একটি হোটেলের পাশাপাশি একই মানের আরও দুটি বহুতল ভবন নির্মাণের কাজ এগিয়ে চলছে। অবসর সময়ে নৌকায় ঘুরে বেড়ানোর জন্য তৈরি হচ্ছে কৃত্রিম লেক।

জানা যায়, হোটেলে থাকবে আন্তর্জাতিক মানের সুইমিং পুল, জিম এবং টেনিস কোর্ট। ইতোমধ্যে রেস্টুরেন্ট, সেলুন ও লন্ড্রিসহ নানা সুযোগ-সুবিধা নিয়ে শপিংমলের কার্যক্রম শুরু হয়েছে।

প্রকৃতপক্ষে ভাসানচর পর্যবেক্ষণে আসা জাতিসংঘের বিদেশি কর্মকর্তাদের লক্ষ্য করেই গড়ে তোলা হচ্ছে শপিংমল। এসবে সাজানো রয়েছে নিত্য ব্যবহার্য নানা জিনিসপত্র। আবার পাশেই রয়েছে উন্নতমানের সেলুন, লন্ড্রি ও রেস্টুরেন্ট। রাজধানী ঢাকার কিংবা বিভাগীয় শহরের শপিংমলগুলোর মতোই ভাসানচরে তৈরি করা হয়েছে আইল্যান্ড মল নামের বিপণিবিতান।

ভাসানচর আশ্রয়ণ প্রকল্পের অতিরিক্ত প্রকল্প পরিচালক কমান্ডার আনোয়ারুল কবির বলেন, বসবাসের জন্য সকল সুযোগ-সুবিধার সঙ্গে এসব ভবনের বাসিন্দাদের জন্য থাকবে কঠোর নিরাপত্তা ব্যবস্থা।

শরণার্থী ত্রাণ ও প্রত্যাবাসন কমিশনের (আরআরআরসি) অতিরিক্ত কমিশনার মোয়াজ্জেম হোসাইন বলেন, এখানে নিরাপত্তা ব্যবস্থা জোরদার করা হবে। হোটেলের পাশেই থাকবে জাতিসংঘ এবং শারণার্থীবিষয়ক কমিশনের জন্য আরও দুটি বহুতল ভবন। কয়েক মাস আগে থেকে তিনটি ভবনের নির্মাণকাজ শুরু হয়েছে।

তিনি আরও বলেন, ভাসানচরের মাটিতে স্টিল স্ট্রাকচারে তোলা হোটেল ও আবাসিক ভবনের পাশেই চলছে আন্তর্জাতিক মানের সুইমিংপুল, জিম এবং টেনিস কোর্ট নির্মাণের কাজ। অবসর সময়ে নৌকায় ঘুরে বেড়ানোর জন্য প্রস্তুত করা হচ্ছে কৃত্রিম লেক। সব মিলিয়ে একটি আধুনিক পাঁচ তারকা হোটেল গড়ে তোলা হচ্ছে।

নোয়াখালীর বিচ্ছিন্ন দ্বীপ উপজেলা হাতিয়ার ভাসানচরে তৈরি হচ্ছে পাঁচ তারকা মানের হোটেল। জাতিসংঘের বিভিন্ন সংস্থার কর্মকর্তাদের ভাসানচরমুখী হওয়ায় তাদের জন্য উত্তরপ্রান্তে তৈরি করা হচ্ছে এই হোটেল।

সরেজমিনে দেখা যায়, ভাসানচরে স্টিল স্ট্রাকচারে তোলা হোটেল ও আবাসিক ভবনের পাশেই চলছে আন্তর্জাতিক মানের সুইমিংপুল, জিমনেশিয়াম এবং টেনিস কোর্ট তৈরির কাজ। পাঁচ তারকা একটি হোটেলের পাশাপাশি একই মানের আরও দুটি বহুতল ভবন নির্মাণের কাজ এগিয়ে চলছে। অবসর সময়ে নৌকায় ঘুরে বেড়ানোর জন্য তৈরি হচ্ছে কৃত্রিম লেক।

জানা যায়, হোটেলে থাকবে আন্তর্জাতিক মানের সুইমিং পুল, জিম এবং টেনিস কোর্ট। ইতোমধ্যে রেস্টুরেন্ট, সেলুন ও লন্ড্রিসহ নানা সুযোগ-সুবিধা নিয়ে শপিংমলের কার্যক্রম শুরু হয়েছে।

প্রকৃতপক্ষে ভাসানচর পর্যবেক্ষণে আসা জাতিসংঘের বিদেশি কর্মকর্তাদের লক্ষ্য করেই গড়ে তোলা হচ্ছে শপিংমল। এসবে সাজানো রয়েছে নিত্য ব্যবহার্য নানা জিনিসপত্র। আবার পাশেই রয়েছে উন্নতমানের সেলুন, লন্ড্রি ও রেস্টুরেন্ট। রাজধানী ঢাকার কিংবা বিভাগীয় শহরের শপিংমলগুলোর মতোই ভাসানচরে তৈরি করা হয়েছে আইল্যান্ড মল নামের বিপণিবিতান।

ভাসানচর আশ্রয়ণ প্রকল্পের অতিরিক্ত প্রকল্প পরিচালক কমান্ডার আনোয়ারুল কবির বলেন, বসবাসের জন্য সকল সুযোগ-সুবিধার সঙ্গে এসব ভবনের বাসিন্দাদের জন্য থাকবে কঠোর নিরাপত্তা ব্যবস্থা।

শরণার্থী ত্রাণ ও প্রত্যাবাসন কমিশনের (আরআরআরসি) অতিরিক্ত কমিশনার মোয়াজ্জেম হোসাইন বলেন, এখানে নিরাপত্তা ব্যবস্থা জোরদার করা হবে। হোটেলের পাশেই থাকবে জাতিসংঘ এবং শারণার্থীবিষয়ক কমিশনের জন্য আরও দুটি বহুতল ভবন। কয়েক মাস আগে থেকে তিনটি ভবনের নির্মাণকাজ শুরু হয়েছে।

তিনি আরও বলেন, ভাসানচরের মাটিতে স্টিল স্ট্রাকচারে তোলা হোটেল ও আবাসিক ভবনের পাশেই চলছে আন্তর্জাতিক মানের সুইমিংপুল, জিম এবং টেনিস কোর্ট নির্মাণের কাজ। অবসর সময়ে নৌকায় ঘুরে বেড়ানোর জন্য প্রস্তুত করা হচ্ছে কৃত্রিম লেক। সব মিলিয়ে একটি আধুনিক পাঁচ তারকা হোটেল গড়ে তোলা হচ্ছে।

ভাসানচরে হচ্ছে পাঁচ তারকা হোটেল

ডেস্ক নিউজ
আপডেটঃ ২১ নভেম্বর, ২০২১ | ৯:৫৬ 92 ভিউ
নোয়াখালীর বিচ্ছিন্ন দ্বীপ উপজেলা হাতিয়ার ভাসানচরে তৈরি হচ্ছে পাঁচ তারকা মানের হোটেল। জাতিসংঘের বিভিন্ন সংস্থার কর্মকর্তাদের ভাসানচরমুখী হওয়ায় তাদের জন্য উত্তরপ্রান্তে তৈরি করা হচ্ছে এই হোটেল। সরেজমিনে দেখা যায়, ভাসানচরে স্টিল স্ট্রাকচারে তোলা হোটেল ও আবাসিক ভবনের পাশেই চলছে আন্তর্জাতিক মানের সুইমিংপুল, জিমনেশিয়াম এবং টেনিস কোর্ট তৈরির কাজ। পাঁচ তারকা একটি হোটেলের পাশাপাশি একই মানের আরও দুটি বহুতল ভবন নির্মাণের কাজ এগিয়ে চলছে। অবসর সময়ে নৌকায় ঘুরে বেড়ানোর জন্য তৈরি হচ্ছে কৃত্রিম লেক। জানা যায়, হোটেলে থাকবে আন্তর্জাতিক মানের সুইমিং পুল, জিম এবং টেনিস কোর্ট। ইতোমধ্যে রেস্টুরেন্ট, সেলুন ও লন্ড্রিসহ নানা সুযোগ-সুবিধা নিয়ে শপিংমলের কার্যক্রম শুরু হয়েছে। প্রকৃতপক্ষে ভাসানচর পর্যবেক্ষণে আসা জাতিসংঘের বিদেশি কর্মকর্তাদের লক্ষ্য করেই গড়ে তোলা হচ্ছে শপিংমল। এসবে সাজানো রয়েছে নিত্য ব্যবহার্য নানা জিনিসপত্র। আবার পাশেই রয়েছে উন্নতমানের সেলুন, লন্ড্রি ও রেস্টুরেন্ট। রাজধানী ঢাকার কিংবা বিভাগীয় শহরের শপিংমলগুলোর মতোই ভাসানচরে তৈরি করা হয়েছে আইল্যান্ড মল নামের বিপণিবিতান। ভাসানচর আশ্রয়ণ প্রকল্পের অতিরিক্ত প্রকল্প পরিচালক কমান্ডার আনোয়ারুল কবির বলেন, বসবাসের জন্য সকল সুযোগ-সুবিধার সঙ্গে এসব ভবনের বাসিন্দাদের জন্য থাকবে কঠোর নিরাপত্তা ব্যবস্থা। শরণার্থী ত্রাণ ও প্রত্যাবাসন কমিশনের (আরআরআরসি) অতিরিক্ত কমিশনার মোয়াজ্জেম হোসাইন বলেন, এখানে নিরাপত্তা ব্যবস্থা জোরদার করা হবে। হোটেলের পাশেই থাকবে জাতিসংঘ এবং শারণার্থীবিষয়ক কমিশনের জন্য আরও দুটি বহুতল ভবন। কয়েক মাস আগে থেকে তিনটি ভবনের নির্মাণকাজ শুরু হয়েছে। তিনি আরও বলেন, ভাসানচরের মাটিতে স্টিল স্ট্রাকচারে তোলা হোটেল ও আবাসিক ভবনের পাশেই চলছে আন্তর্জাতিক মানের সুইমিংপুল, জিম এবং টেনিস কোর্ট নির্মাণের কাজ। অবসর সময়ে নৌকায় ঘুরে বেড়ানোর জন্য প্রস্তুত করা হচ্ছে কৃত্রিম লেক। সব মিলিয়ে একটি আধুনিক পাঁচ তারকা হোটেল গড়ে তোলা হচ্ছে।

দৈনিক ডোনেট বাংলাদেশ সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ট্যাগ:

সংশ্লিষ্ট সংবাদ: