মধুখালীতে ভুমি খাদকরা খাচ্ছে মাটি ও রাস্তা - ডোনেট বাংলাদেশ

ফরিদপুরের মধুখালীতে আড়পাড়া ইউনিয়নের মধ্য আড়পাড়া গ্রামের, চার খালের মাথা সংলগ্ন সড়কটি ভেঙ্গেচুরে বেহাল দশা করেছে সংঘবদ্ধ একটি সুবিধাবাদী ভূমি খাদক চক্র। সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায ফসলি জমি ও রাস্তার ঢাক ভেকু দিয়ে কেটে ট্রাক ও ট্রলিতে করে মাটি নিয়ে হচ্ছে। বিক্রি করা হচ্ছে বিভিন্ন ভাটাতে ও নির্মানাধীণ বাড়ীতে। প্রতিনিয়ত ট্রাক ও ট্রলি চলাচল করার কারণে অন্যান্য যানবাহন চলাচলে অনুপোযোগী হয়ে পড়ছেছে সরাস্তাটি। পথিক চলতেও খুব কষ্ট হচ্ছে, সাংবাদিকদের কাছে ক্ষুব্দ প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করেন এলাকার সাধারণ মানুষ। কোন ভাবেই এই রাস্তা দিয়ে অসুস্থ রোগী নিয়ে যাওয়া সম্ভব নয। গাড়ীর পিছুপিছু গিয়ে দেখাতে পাই, ঠিক রাস্তার সাথে মিশিয়ে ভেকু দিয়ে

মাটি কাটা হচ্ছে। সরকারি জায়গা থেকে ও রাস্তার মাটি কাটা হচ্ছে। ভেকু ড্রাইভার ও উপস্থিত লোকজনের কাছ থেকে জানা যায়, শাহরিয়ার যোগসাজশে এবং বিল্লাল হোসেনের তত্তাাবধা ভেকু দিয়ে মাটি কাটা হচ্ছে। জমির মালিক দাবী করে শাহরিয়ার বলেন যা পারেন লেখেন। এছাড়াও তারা বিশেষ মহলের ক্ষমতা প্রয়োগ করে অবৈধ ভাবে দিদারছে মাটির বিক্রয়ের ব্যবসা করে যাচ্ছেন। উপজেলার নিভৃতে হওয়ায় দেখার দেখার কেউ নাই। উত্তর আড়পাড়া ¯øুইস গেট সংল্গন জামে মসজিদ থেকে হেংলার মাঠ হয়ে জঙ্গল পর্যন্ত। হেংলার ফসলি জমি ও রাস্তা থেকে মাটি কেটে ট্রাক ও ট্রলি করে নিওয়ায় রাস্তার বেহাল দশা। অথচ ইউনিয়ন পরিষদ

চেয়ারম্যানের অধিনেই সরকারি অর্থায়ানে রাস্তা সংস্কারের কাজ চলমান আছে। অপরদিকে শক্তিশালী ভূমি খাদকেরা রাস্তাটি খেয়ে চলেছেন,এনিয়ে ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যানের কোন মাথা ব্যাথা নেই। স্থানীয়দের সাথে কথা বল্লে তারা ক্ষোভ ঝাড়েন। অপর দিকে খালের মধ্যের সরকারী গাছ গুলি আড়পাড়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মোঃ জাকির হোসেন মোল্যার প্রত্যক্ষ মদতে উত্তর আড়পাড়া গ্রামের সোহবান খান কেটে নিয়ে যাচ্ছেন। বিষয়টি মধুখালী উপজেলা নির্বাহি কর্মকর্তা আশিকুর রহমান চৌধুরীকে জানালে,তিনি ব্যবস্থা নিবেন বলে সংবাদিকদের জানান। রাস্তা ধ্বংস,সরকারী গাছ কর্তন এবং রাস্তার ও ফসলি জমির মাটি কাটা বিষয়ে আড়পাড়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মোঃ জাকির হোসেন মোল্যার কাছে জানতে চাইলে তিনি জানান নিজস্ব জমি থেকে

তারা মাটি কাটছে। রাস্তা খারাপ বা ভেঙ্গে নষ্ট হলে তারা নিজস্ব অর্থায়নে ঠিক করে দিবেন বলে আমার সাথে কথা হয়েছে তাদের। সরকারী গাছ কর্তনের বিষয়ে বলেন তাদের জমির সামনে খালের মধ্য থেকে গাছ কর্তন করছেন।

ফরিদপুরের মধুখালীতে আড়পাড়া ইউনিয়নের মধ্য আড়পাড়া গ্রামের, চার খালের মাথা সংলগ্ন সড়কটি ভেঙ্গেচুরে বেহাল দশা করেছে সংঘবদ্ধ একটি সুবিধাবাদী ভূমি খাদক চক্র। সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায ফসলি জমি ও রাস্তার ঢাক ভেকু দিয়ে কেটে ট্রাক ও ট্রলিতে করে মাটি নিয়ে হচ্ছে। বিক্রি করা হচ্ছে বিভিন্ন ভাটাতে ও নির্মানাধীণ বাড়ীতে। প্রতিনিয়ত ট্রাক ও ট্রলি চলাচল করার কারণে অন্যান্য যানবাহন চলাচলে অনুপোযোগী হয়ে পড়ছেছে সরাস্তাটি। পথিক চলতেও খুব কষ্ট হচ্ছে, সাংবাদিকদের কাছে ক্ষুব্দ প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করেন এলাকার সাধারণ মানুষ। কোন ভাবেই এই রাস্তা দিয়ে অসুস্থ রোগী নিয়ে যাওয়া সম্ভব নয। গাড়ীর পিছুপিছু গিয়ে দেখাতে পাই, ঠিক রাস্তার সাথে মিশিয়ে ভেকু দিয়ে

মাটি কাটা হচ্ছে। সরকারি জায়গা থেকে ও রাস্তার মাটি কাটা হচ্ছে। ভেকু ড্রাইভার ও উপস্থিত লোকজনের কাছ থেকে জানা যায়, শাহরিয়ার যোগসাজশে এবং বিল্লাল হোসেনের তত্তাাবধা ভেকু দিয়ে মাটি কাটা হচ্ছে। জমির মালিক দাবী করে শাহরিয়ার বলেন যা পারেন লেখেন। এছাড়াও তারা বিশেষ মহলের ক্ষমতা প্রয়োগ করে অবৈধ ভাবে দিদারছে মাটির বিক্রয়ের ব্যবসা করে যাচ্ছেন। উপজেলার নিভৃতে হওয়ায় দেখার দেখার কেউ নাই। উত্তর আড়পাড়া ¯øুইস গেট সংল্গন জামে মসজিদ থেকে হেংলার মাঠ হয়ে জঙ্গল পর্যন্ত। হেংলার ফসলি জমি ও রাস্তা থেকে মাটি কেটে ট্রাক ও ট্রলি করে নিওয়ায় রাস্তার বেহাল দশা। অথচ ইউনিয়ন পরিষদ

চেয়ারম্যানের অধিনেই সরকারি অর্থায়ানে রাস্তা সংস্কারের কাজ চলমান আছে। অপরদিকে শক্তিশালী ভূমি খাদকেরা রাস্তাটি খেয়ে চলেছেন,এনিয়ে ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যানের কোন মাথা ব্যাথা নেই। স্থানীয়দের সাথে কথা বল্লে তারা ক্ষোভ ঝাড়েন। অপর দিকে খালের মধ্যের সরকারী গাছ গুলি আড়পাড়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মোঃ জাকির হোসেন মোল্যার প্রত্যক্ষ মদতে উত্তর আড়পাড়া গ্রামের সোহবান খান কেটে নিয়ে যাচ্ছেন। বিষয়টি মধুখালী উপজেলা নির্বাহি কর্মকর্তা আশিকুর রহমান চৌধুরীকে জানালে,তিনি ব্যবস্থা নিবেন বলে সংবাদিকদের জানান। রাস্তা ধ্বংস,সরকারী গাছ কর্তন এবং রাস্তার ও ফসলি জমির মাটি কাটা বিষয়ে আড়পাড়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মোঃ জাকির হোসেন মোল্যার কাছে জানতে চাইলে তিনি জানান নিজস্ব জমি থেকে

তারা মাটি কাটছে। রাস্তা খারাপ বা ভেঙ্গে নষ্ট হলে তারা নিজস্ব অর্থায়নে ঠিক করে দিবেন বলে আমার সাথে কথা হয়েছে তাদের। সরকারী গাছ কর্তনের বিষয়ে বলেন তাদের জমির সামনে খালের মধ্য থেকে গাছ কর্তন করছেন।

মধুখালীতে ভুমি খাদকরা খাচ্ছে মাটি ও রাস্তা

ডেস্ক নিউজ
আপডেটঃ ১২ জানুয়ারি, ২০২২ | ৪:৫৪ 47 ভিউ
ফরিদপুরের মধুখালীতে আড়পাড়া ইউনিয়নের মধ্য আড়পাড়া গ্রামের, চার খালের মাথা সংলগ্ন সড়কটি ভেঙ্গেচুরে বেহাল দশা করেছে সংঘবদ্ধ একটি সুবিধাবাদী ভূমি খাদক চক্র। সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায ফসলি জমি ও রাস্তার ঢাক ভেকু দিয়ে কেটে ট্রাক ও ট্রলিতে করে মাটি নিয়ে হচ্ছে। বিক্রি করা হচ্ছে বিভিন্ন ভাটাতে ও নির্মানাধীণ বাড়ীতে। প্রতিনিয়ত ট্রাক ও ট্রলি চলাচল করার কারণে অন্যান্য যানবাহন চলাচলে অনুপোযোগী হয়ে পড়ছেছে সরাস্তাটি। পথিক চলতেও খুব কষ্ট হচ্ছে, সাংবাদিকদের কাছে ক্ষুব্দ প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করেন এলাকার সাধারণ মানুষ। কোন ভাবেই এই রাস্তা দিয়ে অসুস্থ রোগী নিয়ে যাওয়া সম্ভব নয। গাড়ীর পিছুপিছু গিয়ে দেখাতে পাই, ঠিক রাস্তার সাথে মিশিয়ে ভেকু দিয়ে

মাটি কাটা হচ্ছে। সরকারি জায়গা থেকে ও রাস্তার মাটি কাটা হচ্ছে। ভেকু ড্রাইভার ও উপস্থিত লোকজনের কাছ থেকে জানা যায়, শাহরিয়ার যোগসাজশে এবং বিল্লাল হোসেনের তত্তাাবধা ভেকু দিয়ে মাটি কাটা হচ্ছে। জমির মালিক দাবী করে শাহরিয়ার বলেন যা পারেন লেখেন। এছাড়াও তারা বিশেষ মহলের ক্ষমতা প্রয়োগ করে অবৈধ ভাবে দিদারছে মাটির বিক্রয়ের ব্যবসা করে যাচ্ছেন। উপজেলার নিভৃতে হওয়ায় দেখার দেখার কেউ নাই। উত্তর আড়পাড়া ¯øুইস গেট সংল্গন জামে মসজিদ থেকে হেংলার মাঠ হয়ে জঙ্গল পর্যন্ত। হেংলার ফসলি জমি ও রাস্তা থেকে মাটি কেটে ট্রাক ও ট্রলি করে নিওয়ায় রাস্তার বেহাল দশা। অথচ ইউনিয়ন পরিষদ

চেয়ারম্যানের অধিনেই সরকারি অর্থায়ানে রাস্তা সংস্কারের কাজ চলমান আছে। অপরদিকে শক্তিশালী ভূমি খাদকেরা রাস্তাটি খেয়ে চলেছেন,এনিয়ে ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যানের কোন মাথা ব্যাথা নেই। স্থানীয়দের সাথে কথা বল্লে তারা ক্ষোভ ঝাড়েন। অপর দিকে খালের মধ্যের সরকারী গাছ গুলি আড়পাড়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মোঃ জাকির হোসেন মোল্যার প্রত্যক্ষ মদতে উত্তর আড়পাড়া গ্রামের সোহবান খান কেটে নিয়ে যাচ্ছেন। বিষয়টি মধুখালী উপজেলা নির্বাহি কর্মকর্তা আশিকুর রহমান চৌধুরীকে জানালে,তিনি ব্যবস্থা নিবেন বলে সংবাদিকদের জানান। রাস্তা ধ্বংস,সরকারী গাছ কর্তন এবং রাস্তার ও ফসলি জমির মাটি কাটা বিষয়ে আড়পাড়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মোঃ জাকির হোসেন মোল্যার কাছে জানতে চাইলে তিনি জানান নিজস্ব জমি থেকে

তারা মাটি কাটছে। রাস্তা খারাপ বা ভেঙ্গে নষ্ট হলে তারা নিজস্ব অর্থায়নে ঠিক করে দিবেন বলে আমার সাথে কথা হয়েছে তাদের। সরকারী গাছ কর্তনের বিষয়ে বলেন তাদের জমির সামনে খালের মধ্য থেকে গাছ কর্তন করছেন।

দৈনিক ডোনেট বাংলাদেশ সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ট্যাগ:

সংশ্লিষ্ট সংবাদ:


































শীর্ষ সংবাদ:
এবার প্ল্যাকার্ড হাতে আন্দোলনে শাবি শিক্ষকরা আগামী ১৫ দিন তেলের দাম অপরিবর্তিত থাকবে: বাণিজ্যমন্ত্রী কাল থেকে উপজেলায় যাচ্ছে ওএমএসের চাল-আটা টেনিসকে বিদায় জানাচ্ছেন সানিয়া মির্জা বাংলাদেশের বোলিং কোচ হতে আগ্রহী শন টেইট দল বহিষ্কার করলেও কর্মী হিসেবে কাজ করে যাব: তৈমুর বিজেপিতে যোগ দিয়ে আলোচনায় অপর্ণা ভারতে ট্রেন দুর্ঘটনার তদন্তে চাঞ্চল্যকর তথ্য সিদ্ধিরগঞ্জে সেনাসদস্য হত্যায় ৩ ছিনতাইকারী গ্রেফতার ডাব পাড়া নিয়ে মান্নানকে পিটিয়ে হত্যায় বাবা-ছেলের যাবজ্জীবন তালেবানকে আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের প্রত্যাশা পূরণ করতে হবে: চীন দোষ থাকলে সরকার যে সিদ্ধান্ত নেবে, তাই মেনে নেব: উপাচার্য মধুখালীতে ইয়াবা ট্যাবলেটসহ মাদক ব্যবসায়ী আটক মধুখালীতে কোভিড পরবর্তী করনীয় বিষয়ক প্রশিক্ষণ রাজশাহীতে অহরহ ছিনতাইয়ের ঘটনায় শিক্ষার্থীদের প্রতিবাদ ডুয়ানি’র এডহক কমিটি ঘোষণা CU Chhatra League clash,wounded 5 leader একদিনে আরও ৩০ লাখ করোনায় আক্রান্ত, মৃত্যু ৮ হাজার ভারতীয় নৌবাহিনীর যুদ্ধজাহাজে বিস্ফোরণ, ৩ সেনা নিহত রাজধানীর যেসব এলাকায় গ্যাস থাকবে না আজ