শালিখায় উপজেলা নির্বাহী অফিসারের অভিনব কৌশলে করোনার মোকাবেলা।


অথর
উপজেলা সংবাদদাতা   শালিখা, মাগুরা, খুলনা
প্রকাশিত :১ মে ২০২০, ১২:৪৩ অপরাহ্ণ | পঠিত : 2349 বার
0
শালিখায় উপজেলা নির্বাহী অফিসারের অভিনব কৌশলে করোনার মোকাবেলা।

করোনা ভাইরাস এর প্রার্দুভাব টেকাতে বাংলাদেশ সরকারের সেনাবাহিনী,পুলিশ, প্রশাসন,ডাক্তার, আনসার ও বিভিন্ন বে সরকারি প্রতিষ্ঠান গুলোকে একসাথে কাজ দিয়েছেন মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তারা চেষ্টা করছেন সাধারণ মানুষকে নিদির্ষ্ট সামাজিক দুরত্ব মেনে চলতে। অনেক সময় দেখা যায় তারা বিধি নিষেধ অমান্য করে চলাফেরা করছেন।ঠিক এমন সময় মাগুরা জেলার শালিখা উপজেলার নির্বাহী অফিসার জনাব মোঃ তানভীর রহমান জনগণকে সচেতন করতে বিভিন্ন রকম কৌশল গ্রহণ করেছেন। তিনি বলেছেন বর্তমান অবস্থা যেমনই হোক না কেন মাননীয় প্রধানমন্ত্রী বঙ্গবন্ধুর তনয়া শেখ হাসিনা আমাদের মাতৃতুল্য।তার নির্দেশ রক্ষা করতে সরকারি চাকুরীজিবী বাদেও দলমত নির্বিশেষে সবাইকে এগিয়ে আসতে হবে।উন্নত রাষ্ট্রগুলো যেখানে এই পরিস্থিতি সামাল দিতে পারছেনা, প্রতিদিন

হাজার হাজার মানুষের মৃত্যু মিছিল বের হচ্ছে।এমতাবস্থায় আমাদের দেশেওশুরু হয়েছে মৃত্যু মিছিল।এই সংকট এড়াতে ইউএনও তানভীর রহমান বিভিন্ন অভিনব উদ্যোগ গ্রহণ করেছেন।স্থানীয় স্কুল,কলেজ,বিশ্ববিদ্যালয় ওস্থানীয় বেকার যুবকদেরকে নিয়ে, প্রতিটি ইউনিয়ন চেয়ারম্যান ও ওয়ার্ড কাউন্সিলরদের মাধ্যমে যুবকদের নিয়ে সূর্যসৈনিক নামে একটি সেচ্ছাসেবক দল গঠন করেছেন।যাদের মাধ্যমে প্রত্যেক এলাকার মূল প্রবেশ পথে চেক পোষ্ট গঠন করেছেন।আগত প্রতিটি ইজিবাইক,ভ্যান ও মাইক্রোবাসের সকল যাত্রীদের মাস্ক পরা,নিরাপদ দুরত্ব বজায় রেখে বসা,বাহিরের জেলা হতে কেউ ঐএলাকায় প্রবেশ করছে কিনা নিশ্চিত করতে পারছেন। এইসব সেচ্ছাসেবকদের নিয়মিত ট্রেনিং দিচ্ছেন জনাব তানভীর রহমান। কোন সেচ্ছাসেবক কর্মী যেন ফাঁকি দিতে না পারে, এইজন্য প্রতিটি ওয়ার্ড মেম্বারকে টিম লিডার বানিয়েছেন।আর এদের

কনট্রোল অফিসার গঠন করে নিজ অফিসে ভিন্ন ভিন্ন কনট্রোল রুম গঠন করে সমগ্র সেচ্ছাসেবকদের পরিচালনা করছেন।অপরপক্ষে সরকার কর্তৃক প্রদত্ত ত্রান প্রকৃত পক্ষে যাদের পাওয়ার কথা সেইটি সুস্পষ্টভাবে পাওয়ার জন্য স্থানীয় প্রাইমারী ও মাধ্যমিক স্কুলের কর্মপারদর্শী নিরপেক্ষ শিক্ষক মন্ডলী নিয়ে কমিটি গঠন করে, প্রথমে দুস্থ,হতদরিদ্র,চা দোকানদারদের তালিকা গঠন করে ত্রান সামগ্রী বিতরণ করেন।এছাড়াও সরকার নির্ধারিত টিসিবির পণ্য নিজে দাড়িয়ে থেকে বিতরণ করছেন। সারাদেশে ত্রান চুরির ঘটনা ঘটলে তার উপজেলায় এখনও এমন অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটেনি।শিক্ষক কমিটির মাধ্যমে প্রতিটি এলাকার বিত্তবানদের একটা তালিকা তৈরী করেন। নিজের মোবাইল থেকে ফোন করে তিনি বিত্তবানদের বলেন আপনারা অন্তত ১০ কেজি চাল,৪কেজি আলু, ১কেজি ডাল ও ১লিটার

তেল দিবেন।প্রশংসার সাথে তিনি বলেন বিত্তবান লোক বাদেও বিভিন্ন রকম সমিতি এগিয়ে এসেছে নিজ উদ্যোগে। তানভীর রহমান বলেন, সমিতিগুলোর মধ্যে প্রথম সাড়াদেয় সিংড়ার ফ্রেনডস সমবায় সমিতির সদস্য বৃন্দ।পাবনা জেলায় কর্মরত পুলিশ সুপার বাবু গৌতম কুমার বিশ্বাস ও তার ভাই উত্তম কুমার বিশ্বাস কাস্টম ডিজি কুমিল্লা জেলা, তারা দুই ভাই এই ক্লাবের প্রতিস্থাপন দাতা। শালিখা থানার পুলিশ কর্মচারী সমিতি,শালিখার চাকুরীজীবি সমিতি ও শালিখার যুব সমাজ এই কাজে সার্বক্ষণিক সাহায্য ও পাশে দাড়িয়েছেন। নির্বাহী অফিসার আরো বলেন,কেউ যদি লজ্জা পায় তাহলে গোপনীয় ভাবে আমার সহকারী জনাব জহির রায়হান এর নিকট ফোনে জানালে গোপনীয় ভাবে তদন্ত করে তাকে ত্রান সাহায্য দিবেন।এই দুঃসময়ে শালিখা

উপজেলার ইউএনও মোঃ তানভীর রহমানের মত একজন সৎ নিষ্ঠাবান এবং চৌকস অফিসারকে পেয়ে মাগুরা ২ আসনের সংসদ সদস্য জনাব ডঃ শ্রী বীরেন শিকদার এমপি এবং তার এলাকার জনসাধারণ ধন্য বলে মনে করেন

No Comments

ADD: 1762020


আরও পড়ুন