শীতের শুরুতেই তৈরি করুন দুধ চিতই - ডোনেট বাংলাদেশ

প্রকৃতি এরই মধ্যে জানান দিচ্ছে শীত চলে এসেছে। আর শীত মানেই বাহারি পিঠা খাওয়ার মৌসুম। এ সময় সব পরিবারেই বাহারি পিঠা তৈরি করা হয়।

তার মধ্যে সবচেয়ে জনপ্রিয় পিঠা হলো দুধ চিতই। এই পিঠা খেতে কে না পছন্দ করেন। বিভিন্ন ভর্তা দিয়ে চিতই পিঠা খাওয়ার মজাই আলাদা।
অন্যদিকে রসালো দুধ পিঠা একবার খেলে মন জুড়িয়ে যায়। আপনিও যদি এই পিঠা খেতে পছন্দ করেন, তাহলে শীতের শুরুতেই তৈরি করুন। রইলো সহজ রেসিপি-

উপকরণ
১. আতপ চাল ৩ কাপ
২. লবণ পরিমাণমতো
৩. খেজুরের গুড় আড়াই কাপ
৪. দুধ ২ লিটার
৫. দারুচিনি ২-৩টি
৬. এলাচ ২টি
৭. পানি ৩ কাপ ও
৮. কিসমিস পরিমাণ মতো।

শীতের শুরুতেই তৈরি করুন দুধ চিতই
পদ্ধতি

আতপ চাল ২-৩ ঘণ্টা ভিজিয়ে রাখুন। তারপর মিহি করে বেটে সামান্য লবণ দিয়ে ঘণ্টাখানেক রাখুন। এরপর মিশ্রণে পরিমাণমতো কুসুম গরম পানি দিয়ে গোলা তৈরি করুন।

খেয়াল রাখবেন, গোলা যেন খুব ঘন কিংবা পাতলা না হয়। লোহার কড়াই কিংবা চিতই পিঠার জন্য মাটির তাওয়া গরম করে তাতে সামান্য সরিষা ও সয়াবিন তেল মাখিয়ে নিন।

এরপর বড় চামচের এক চামচ গোলা পিঠার খোলায় দিয়ে ঢেকে দিন। এরপর ঢাকনায় সামান্য পানি ছিটিয়ে দিন, ৪-৫ মিনিট পর পিঠা তুলে ফেলুন।

এবার পিঠার রস তৈরির জন্য খেজুরের গুড় পানিতে মিশিয়ে জ্বাল দিয়ে নিন। মিশ্রণটি ফুটে উঠলে এলাচ, দারুচিনি, কিসমিস দিয়ে নামিয়ে ফেলুন।

ঠান্ডা হলে দুধ মিশিয়ে সিরা তৈরি করুন। গরম অবস্থায় গুড়ের মিশ্রণ মেশালে দুধ নষ্ট হয়ে যাবার সম্ভবনা থেকে যায়। এরপর সিরা আবার চুলায় দিন।

২ লিটার দুধ ঘন হয়ে যখন ১ লিটার হয়ে যাবে, তখন গরম অবস্থায় পিঠা সিরায় ভিজিয়ে দিন। ঠান্ডা হলে ৫-৬ ঘণ্টা পর পরিবেশন করুন।

সবচেয়ে ভালো হয় রাতে তৈরি করলে। তাহলে ভালোভাবে রসে ভিজে ফুলে উঠবে।

প্রকৃতি এরই মধ্যে জানান দিচ্ছে শীত চলে এসেছে। আর শীত মানেই বাহারি পিঠা খাওয়ার মৌসুম। এ সময় সব পরিবারেই বাহারি পিঠা তৈরি করা হয়।

তার মধ্যে সবচেয়ে জনপ্রিয় পিঠা হলো দুধ চিতই। এই পিঠা খেতে কে না পছন্দ করেন। বিভিন্ন ভর্তা দিয়ে চিতই পিঠা খাওয়ার মজাই আলাদা।
অন্যদিকে রসালো দুধ পিঠা একবার খেলে মন জুড়িয়ে যায়। আপনিও যদি এই পিঠা খেতে পছন্দ করেন, তাহলে শীতের শুরুতেই তৈরি করুন। রইলো সহজ রেসিপি-

উপকরণ
১. আতপ চাল ৩ কাপ
২. লবণ পরিমাণমতো
৩. খেজুরের গুড় আড়াই কাপ
৪. দুধ ২ লিটার
৫. দারুচিনি ২-৩টি
৬. এলাচ ২টি
৭. পানি ৩ কাপ ও
৮. কিসমিস পরিমাণ মতো।

শীতের শুরুতেই তৈরি করুন দুধ চিতই
পদ্ধতি

আতপ চাল ২-৩ ঘণ্টা ভিজিয়ে রাখুন। তারপর মিহি করে বেটে সামান্য লবণ দিয়ে ঘণ্টাখানেক রাখুন। এরপর মিশ্রণে পরিমাণমতো কুসুম গরম পানি দিয়ে গোলা তৈরি করুন।

খেয়াল রাখবেন, গোলা যেন খুব ঘন কিংবা পাতলা না হয়। লোহার কড়াই কিংবা চিতই পিঠার জন্য মাটির তাওয়া গরম করে তাতে সামান্য সরিষা ও সয়াবিন তেল মাখিয়ে নিন।

এরপর বড় চামচের এক চামচ গোলা পিঠার খোলায় দিয়ে ঢেকে দিন। এরপর ঢাকনায় সামান্য পানি ছিটিয়ে দিন, ৪-৫ মিনিট পর পিঠা তুলে ফেলুন।

এবার পিঠার রস তৈরির জন্য খেজুরের গুড় পানিতে মিশিয়ে জ্বাল দিয়ে নিন। মিশ্রণটি ফুটে উঠলে এলাচ, দারুচিনি, কিসমিস দিয়ে নামিয়ে ফেলুন।

ঠান্ডা হলে দুধ মিশিয়ে সিরা তৈরি করুন। গরম অবস্থায় গুড়ের মিশ্রণ মেশালে দুধ নষ্ট হয়ে যাবার সম্ভবনা থেকে যায়। এরপর সিরা আবার চুলায় দিন।

২ লিটার দুধ ঘন হয়ে যখন ১ লিটার হয়ে যাবে, তখন গরম অবস্থায় পিঠা সিরায় ভিজিয়ে দিন। ঠান্ডা হলে ৫-৬ ঘণ্টা পর পরিবেশন করুন।

সবচেয়ে ভালো হয় রাতে তৈরি করলে। তাহলে ভালোভাবে রসে ভিজে ফুলে উঠবে।

শীতের শুরুতেই তৈরি করুন দুধ চিতই

ডেস্ক নিউজ
আপডেটঃ ২১ নভেম্বর, ২০২১ | ৪:০৮ 37 ভিউ
প্রকৃতি এরই মধ্যে জানান দিচ্ছে শীত চলে এসেছে। আর শীত মানেই বাহারি পিঠা খাওয়ার মৌসুম। এ সময় সব পরিবারেই বাহারি পিঠা তৈরি করা হয়। তার মধ্যে সবচেয়ে জনপ্রিয় পিঠা হলো দুধ চিতই। এই পিঠা খেতে কে না পছন্দ করেন। বিভিন্ন ভর্তা দিয়ে চিতই পিঠা খাওয়ার মজাই আলাদা। অন্যদিকে রসালো দুধ পিঠা একবার খেলে মন জুড়িয়ে যায়। আপনিও যদি এই পিঠা খেতে পছন্দ করেন, তাহলে শীতের শুরুতেই তৈরি করুন। রইলো সহজ রেসিপি- উপকরণ ১. আতপ চাল ৩ কাপ ২. লবণ পরিমাণমতো ৩. খেজুরের গুড় আড়াই কাপ ৪. দুধ ২ লিটার ৫. দারুচিনি ২-৩টি ৬. এলাচ ২টি ৭. পানি ৩ কাপ ও ৮. কিসমিস পরিমাণ মতো। শীতের শুরুতেই তৈরি করুন দুধ চিতই পদ্ধতি আতপ চাল ২-৩ ঘণ্টা ভিজিয়ে রাখুন। তারপর মিহি করে বেটে সামান্য লবণ দিয়ে ঘণ্টাখানেক রাখুন। এরপর মিশ্রণে পরিমাণমতো কুসুম গরম পানি দিয়ে গোলা তৈরি করুন। খেয়াল রাখবেন, গোলা যেন খুব ঘন কিংবা পাতলা না হয়। লোহার কড়াই কিংবা চিতই পিঠার জন্য মাটির তাওয়া গরম করে তাতে সামান্য সরিষা ও সয়াবিন তেল মাখিয়ে নিন। এরপর বড় চামচের এক চামচ গোলা পিঠার খোলায় দিয়ে ঢেকে দিন। এরপর ঢাকনায় সামান্য পানি ছিটিয়ে দিন, ৪-৫ মিনিট পর পিঠা তুলে ফেলুন। এবার পিঠার রস তৈরির জন্য খেজুরের গুড় পানিতে মিশিয়ে জ্বাল দিয়ে নিন। মিশ্রণটি ফুটে উঠলে এলাচ, দারুচিনি, কিসমিস দিয়ে নামিয়ে ফেলুন। ঠান্ডা হলে দুধ মিশিয়ে সিরা তৈরি করুন। গরম অবস্থায় গুড়ের মিশ্রণ মেশালে দুধ নষ্ট হয়ে যাবার সম্ভবনা থেকে যায়। এরপর সিরা আবার চুলায় দিন। ২ লিটার দুধ ঘন হয়ে যখন ১ লিটার হয়ে যাবে, তখন গরম অবস্থায় পিঠা সিরায় ভিজিয়ে দিন। ঠান্ডা হলে ৫-৬ ঘণ্টা পর পরিবেশন করুন। সবচেয়ে ভালো হয় রাতে তৈরি করলে। তাহলে ভালোভাবে রসে ভিজে ফুলে উঠবে।

দৈনিক ডোনেট বাংলাদেশ সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ট্যাগ:

সংশ্লিষ্ট সংবাদ: