শেষ মুহূর্তে বেড়েছে পদ প্রত্যাশীদের দৌড়ঝাঁপ – ডোনেট বাংলাদেশ

শেষ মুহূর্তে বেড়েছে পদ প্রত্যাশীদের দৌড়ঝাঁপ

ডেস্ক নিউজ
আপডেটঃ ২৪ নভেম্বর, ২০২২ | ৫:০৪ 15 ভিউ
বাংলাদেশ মহিলা আওয়ামী লীগের ষষ্ঠ জাতীয় সম্মেলন আগামী ২৬ নভেম্বর। সম্মেলন সফল করতে এরই মধ্যে বেশ কয়েকটি উপ-কমিটি গঠন করা হয়েছে। সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে প্রস্তুত করা হচ্ছে মঞ্চ। সম্মেলনে প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত থাকবেন আওয়ামী লীগের সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এদিকে সম্মেলন ঘিরে রয়েছে পদ প্রত্যাশীর ছড়াছড়ি। বর্তমান সভাপতি-সাধারণ সম্পাদকসহ নতুন করে আরও অনেকেই শীর্ষ পদে আসতে চান। তারা নানা মাধ্যমে জানান দিচ্ছেন নিজেদের অবস্থান। সম্মেলনের দিন যত ঘনিয়ে আসছে পদপ্রত্যাশীদের দৌড়ঝাঁপও ততই বাড়ছে। তারা চেষ্টা চালাচ্ছেন নিজেদের যোগ্য প্রমাণে। আওয়ামী লীগ সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দৃষ্টি আকর্ষণ ও আশীর্বাদ পেতে ধরনা দিচ্ছেন আওয়ামী লীগের প্রভাবশালী নেতা-মন্ত্রীদের বাসা অফিসে। এ ছাড়া

সম্মেলনকে কেন্দ্র করে আওয়ামী লীগ সভাপতির ধানমন্ডির রাজনৈতিক কার্যালয়েও বেড়েছে নেতাকর্মীদের ভিড়। জানতে চাইলে মহিলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মাহমুদা বেগম বলেন, সম্মেলনের ভালো প্রস্তুতি চলছে। মঞ্চ তৈরি হচ্ছে। সারা দেশ থেকে আমাদের ডেলিগেটস ও কাউন্সিলররা সম্মেলন যোগ দেবেন। সেসব কাজ এগিয়ে চলছে। এর বাইরেও সারা দেশের অনেক নেতাকর্মী সম্মেলনে যোগ দেবেন। সব মিলিয়ে এখন পর্যন্ত আমাদের খুব ভালো প্রস্তুতি হয়েছে। সর্বশেষ ২০১৭ সালের ৪ মার্চ সম্মেলনের মাধ্যমে মহিলা আওয়ামী লীগের সভাপতি নির্বাচিত হন সাফিয়া খাতুন, সাধারণ সম্পাদক হন মাহমুদা বেগম। কমিটির মেয়াদ ২০২০ সালে শেষ হলেও করোনো মহামারির কারণে নির্ধারিত সময়ে সম্মেলন হয়নি। এখন এ সম্মেলনের মাধ্যমে যারা নেতৃত্বে আসবেন

তাদের নির্বাচনকালীন পরিস্থিতি সামলাতে হবে। কারণ ২০২৪ সালের জানুয়ারি মাসের মধ্যে আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা রয়েছে। দলীয় সূত্রমতে, মহিলা আওয়ামী লীগের কমিটি ১৫১ সদস্যবিশিষ্ট। বর্তমান কমিটির সভাপতি সাফিয়া খাতুন এবারও এই পদে থাকতে আগ্রহী। বর্তমান সাধারণ সম্পাদক মাহমুদা বেগম এবার চাইবেন সভাপতির পদ। সভাপতি-সাধারণ সম্পাদকের বাইরে এই কমিটি থেকে সহ-সভাপতি আসমা জেরিন ঝুমু, শিরীন নাঈম পুনম, আসমা জেরিন ঝুমু, বনশ্রী বিশ্বাস স্মৃতি কনা, নাসিমা ফেরদৌসী, আলেয়া পারভীন রঞ্জু, আজিজা খানম কেয়া, ফারহানা ডলিসহ আরও বেশ কয়েকজন সভাপতি পদ প্রত্যাশী রয়েছেন। নানা মাধ্যমে তারা জানান দিচ্ছেন নিজেদের প্রার্থিতা। জানতে চাইলে মহিলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মাহমুদা বেগম বলেন, আমি একেবারে

তৃণমূল থেকে রাজনীতি করে উঠে এসেছি। বর্তমানে সাধারণ সম্পাদকের দায়িত্ব পালন করছি। এবারের সম্মেলনে নিজেকে সভাপতি হিসাবে যোগ্য দাবি করে এই নেত্রী বলেন, এখন সভাপতি প্রার্থী। নেত্রী (আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনা) যদি আমাদের যোগ্য মনে করে দায়িত্ব দেন তাহলে সংগঠনকে শক্তিশালী করা এবং আগামী নির্বাচনে নৌকার বিষয়ে কাজ করতে চাই। জানা গেছে, সাধারণ সম্পাদক পদপ্রত্যাশীদের মধ্যে শক্তিশালী প্রার্থী বর্তমান সাংগঠনিক সম্পাদক সুলতানা রাজিয়া পান্না। তিনি রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের সাবেক নেত্রী। বিএনপি-জামায়াত জোট সরকারবিরোধী আন্দোলনে আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় উপ-কমিটির সহ-সম্পাদক হিসাবে ঢাকার রাজপথে সক্রিয় ভূমিকা পালন করেন। এ ছাড়াও এ পদের ব্যাপারে আগ্রহী বর্তমান যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক শিরিন রুকসানা, শিখা চক্রবর্তী,

মীনা মালেক, জান্নাত আরা হেনরী, সাংগঠনিক সম্পাদক আনারকলি পুতুল, নাসরীন সুলতানা, ঝর্ণা বাড়ৈ, ইসমত আরা হ্যাপী, দপ্তর সম্পাদক রোজিনা নাসরিন রোজী প্রমুখ। তাদের অনেকেই মহিলা আওয়ামী লীগের আগের কমিটিতেও গুরুত্বপূর্ণ পদে ছিলেন। মহিলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক জান্নাত আরা হেনরী বলেন, ছাত্রলীগ দিয়ে রাজনীতি শুরু করে, জেলা মহিলা আওয়ামী লীগ হয়ে কেন্দ্রীয় কমিটিতে আসি। মহিলা আওয়ামী লীগের আগের কমিটিতে বন ও পরিবেশ বিষয়ক সম্পাদক ছিলাম। আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচন সামনে রেখে সংগঠনকে আরও গতিশীল করা দরকার। আমি মনে করি, আমার কোনো পিছুটান নেই। দলকে আমি সেভাবে সময় দিতে পারব, সুসংগঠিত করার জন্য সার্বক্ষণিক দলের জন্য সময় দিয়ে কাজ করতে পারব। মহিলা

আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক সুলতানা রাজিয়া পান্না বলেন, ছাত্রলীগ দিয়ে আমার রাজনীতি শুরু। আমার রাজনীতিতে কোনো গ্যাপ নেই। কখনো বসে থাকিনি। সব গণতান্ত্রিক আন্দোলনে আমরা অংশগ্রহণ ছিল। বিএনপি-জামায়াত জোট সরকারের বিরুদ্ধে রাজপথে সক্রিয় ছিলাম। এক-এগারোর সময় নেত্রীর মুক্তি আন্দোলনে অগ্রভাগে থেকেছি। তিনি আরও বলেন, এখনো রাজনীতিতে সক্রিয় রয়েছি। দায়িত্ব পেলে এই সংগঠন ভালোভাবে চালাতে পারব। জাতির পিতা বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের সোনার বাংলা বিনির্মাণে শেখ হাসিনার নেতৃত্বে দেশকে এগিয়ে নেওয়ার অগ্রযাত্রায় আমি ছিলাম, আছি এবং থাকব। খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, ১৫ নভেম্বর দুপুরে গণভবনে আওয়ামী লীগের সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে দেখা করেছেন মহিলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে সম্মেলনে

প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত থাকার আমন্ত্রণ জানানোর পাশাপাশি তারা নিজেদের প্রস্তুতির কথাও আওয়ামী লীগ সভাপতিকে অবহিত করেন। এদিকে সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে আওয়ামী লীগের জাতীয় সম্মেলন আগে মহিলা আওয়ামী লীগের এই সম্মেলন হচ্ছে। এ ছাড়া এর মধ্যে আরও কয়েকটি সংগঠনের সম্মেলন হবে। ইতোমধ্যে মঞ্চ তৈরির কাজ অনেকটাই শেষের দিকে। মহিলা আওয়ামী লীগের নেত্রীদের সঙ্গে আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় নেতারাও নিয়মিত এই কাজের তদারকি করছেন।

দৈনিক ডোনেট বাংলাদেশ সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ট্যাগ:

সংশ্লিষ্ট সংবাদ:


শীর্ষ সংবাদ:
নাগেশ্বরীরতে ম্যাগনেট পিলার দিয়ে প্রতারণার অভিযোগে খেলনা পিস্তলসহ এক নারী আটক। নোয়াখালীতে তিন মামলায় জামিন পেলেন বিএনপির কেন্দ্রীয় যুগ্ম মহাসচিব খোকন কুড়িগ্রামে এলজিইডির নির্বাহী প্রকৌশলীকে স্যার না বলে ভাইয়া বলে সম্বোধন করায় সাংবাদিকের উপর চড়াও তারাকান্দা উপজেলা আওয়ামীলীগের বর্ধিত সভা নোয়াখালীতে ইটভাটা আইন সংশোধনের দাবিতে মানববন্ধন নোয়াখালীতে গৃহবধূ হত্যা:স্বামীর মৃত্যুদণ্ড বাগমারায় জেলা কৃষক লীগের সম্মেলন স্থল পরিদর্শন চাতরার দোলায় দিনব্যাপী মাছ ধরা বাওয়া উৎসবে মানুষের ঢল নাটোরে ইটভাটা মলিকদের মানববন্ধন বেনাপোলে ৯৪ লাখ টাকার স্বর্ণ উদ্ধার বেনাপোলে শিশু ধর্ষণের অভিযোগে চটপটি বিক্রেতা গ্রেফতার সিরাজগঞ্জের বেলকুচিতে জেলা প্রশাসক ড.ফারুক আহাম্মদকে বিদায়ী সংবর্ধনা সিরাজগঞ্জের সলঙ্গায় আগুনে পুড়লো ৪ দোকান, ৩৫ লাখ টাকা ক্ষতি মাগুরা রিপোর্টার্স ইউনিটির সাথে মাগুরা পুলিশ সুপারের মতবিনিময় ধানক্ষেত থেকে মুয়াজ্জিনের হাত-পা বাঁধা লাশ উদ্ধার আপনারা ধরছেন চুনোপুঁটি, রাঘববোয়ালদের ধরবে কে: দুদককে হাইকোর্ট জ্যাকুলিনের জবানবন্দি ‘ফখরুল সাহেব, মানুষকে ধোঁকা দিয়ে বোকা বানাতে পারবেন না’ ইউক্রেন বিশ্বের খাদ্য নিরাপত্তা দিয়ে যাবে: জেলেনস্কি যে কারণে হচ্ছে না পদ্মা-মেঘনা বিভাগ