ভাসমান স্বপ্নপুরী ভেনিসে হয়ে গেল নজরকাড়া কার্নিভাল উৎসব - ডোনেট বাংলাদেশ

ইতালির সুন্দরী সাগর কন্যা ভেনিস নগরীতে অনুষ্ঠিত হয়ে গেল বিশ্বখ্যাত কার্নিভাল উৎসব। স্থাপত্য ও ভাস্কর্য শিল্পের চোখ ঝলসানো অপরূপ নগরী ভেনিসে এবার ১৬ ফেব্রুয়ারি থেকে ৫ মার্চ পর্যন্ত এই উৎসব উদযাপিত হলো।

ভেনিসের কার্নিভাল উৎসব বিশ্বজুড়ে বিখ্যাত মূলত বাহারি মুখোশ ও পোশাকের জন্য। প্রায় হাজার বছর বয়স হয়ে যাচ্ছে ভেনিসের এই বার্ষিক আনন্দ উৎসবটির। চাঁদে মানুষের পদার্পণের ৫০ বছরকে উপলক্ষ রেখে এবার পানির ওপরে ভাসমান শহর ভেনিসের বাসিন্দাসহ পর্যটকরা উৎসবটি পালন করল।

এ বছর অনুষ্ঠানের প্রতিপাদ্য ছিল ‘টুট্টা কল্পা ডেল্পা লুনা’, যার মানে ‘চাঁদকে দোষারোপ করা’। যে কারণে এ বছরের অনুষ্ঠানে সবাই পাগলের বেশে মুখোশ পরে হই-হুল্লোড়ের মাধ্যমে উদযাপন করেছে দিনটি।

কার্নিভালকে ঘিরে ভেনিসে জমেছিল বাহারি রঙের নৌকার সমাহার, কনসার্ট, পিয়াচ্ছা সান মার্কো বা সান মার্কো স্কয়ার টাওয়ারের চূড়া থেকে তার বেয়ে নিচে নেমে আসা এবং বিশ্ববিখ্যাত ফ্যাশন ডিজাইনারদের প্যানেলে সবচেয়ে সুন্দর মুখোশ নির্বাচন করা।

১১৬২ সালে অ্যাকুইলেইয়ার যুদ্ধে জিতেছিল ভেনিস। সেদিন লোকেরা নেচে-গেয়ে সান মার্কো স্কয়ার জমিয়ে রেখেছিল। সেটাকেই কার্নিভালের সূচনাকাল ধরা হয়। তবে বিভিন্ন কারণে প্রায় দুই শতক বন্ধ থাকা উৎসবটি আবার ১৯৭৯ সাল থেকে চালু হয়ে আধুনিক রুপে প্রতিবছর উদযাপিত হয়ে আসছে

ইতালির সুন্দরী সাগর কন্যা ভেনিস নগরীতে অনুষ্ঠিত হয়ে গেল বিশ্বখ্যাত কার্নিভাল উৎসব। স্থাপত্য ও ভাস্কর্য শিল্পের চোখ ঝলসানো অপরূপ নগরী ভেনিসে এবার ১৬ ফেব্রুয়ারি থেকে ৫ মার্চ পর্যন্ত এই উৎসব উদযাপিত হলো।

ভেনিসের কার্নিভাল উৎসব বিশ্বজুড়ে বিখ্যাত মূলত বাহারি মুখোশ ও পোশাকের জন্য। প্রায় হাজার বছর বয়স হয়ে যাচ্ছে ভেনিসের এই বার্ষিক আনন্দ উৎসবটির। চাঁদে মানুষের পদার্পণের ৫০ বছরকে উপলক্ষ রেখে এবার পানির ওপরে ভাসমান শহর ভেনিসের বাসিন্দাসহ পর্যটকরা উৎসবটি পালন করল।

এ বছর অনুষ্ঠানের প্রতিপাদ্য ছিল ‘টুট্টা কল্পা ডেল্পা লুনা’, যার মানে ‘চাঁদকে দোষারোপ করা’। যে কারণে এ বছরের অনুষ্ঠানে সবাই পাগলের বেশে মুখোশ পরে হই-হুল্লোড়ের মাধ্যমে উদযাপন করেছে দিনটি।

কার্নিভালকে ঘিরে ভেনিসে জমেছিল বাহারি রঙের নৌকার সমাহার, কনসার্ট, পিয়াচ্ছা সান মার্কো বা সান মার্কো স্কয়ার টাওয়ারের চূড়া থেকে তার বেয়ে নিচে নেমে আসা এবং বিশ্ববিখ্যাত ফ্যাশন ডিজাইনারদের প্যানেলে সবচেয়ে সুন্দর মুখোশ নির্বাচন করা।

১১৬২ সালে অ্যাকুইলেইয়ার যুদ্ধে জিতেছিল ভেনিস। সেদিন লোকেরা নেচে-গেয়ে সান মার্কো স্কয়ার জমিয়ে রেখেছিল। সেটাকেই কার্নিভালের সূচনাকাল ধরা হয়। তবে বিভিন্ন কারণে প্রায় দুই শতক বন্ধ থাকা উৎসবটি আবার ১৯৭৯ সাল থেকে চালু হয়ে আধুনিক রুপে প্রতিবছর উদযাপিত হয়ে আসছে

ভাসমান স্বপ্নপুরী ভেনিসে হয়ে গেল নজরকাড়া কার্নিভাল উৎসব

ডেস্ক নিউজ
আপডেটঃ ১৮ নভেম্বর, ২০২১ | ৫:১৪ 28 ভিউ

ইতালির সুন্দরী সাগর কন্যা ভেনিস নগরীতে অনুষ্ঠিত হয়ে গেল বিশ্বখ্যাত কার্নিভাল উৎসব। স্থাপত্য ও ভাস্কর্য শিল্পের চোখ ঝলসানো অপরূপ নগরী ভেনিসে এবার ১৬ ফেব্রুয়ারি থেকে ৫ মার্চ পর্যন্ত এই উৎসব উদযাপিত হলো। ভেনিসের কার্নিভাল উৎসব বিশ্বজুড়ে বিখ্যাত মূলত বাহারি মুখোশ ও পোশাকের জন্য। প্রায় হাজার বছর বয়স হয়ে যাচ্ছে ভেনিসের এই বার্ষিক আনন্দ উৎসবটির। চাঁদে মানুষের পদার্পণের ৫০ বছরকে উপলক্ষ রেখে এবার পানির ওপরে ভাসমান শহর ভেনিসের বাসিন্দাসহ পর্যটকরা উৎসবটি পালন করল। এ বছর অনুষ্ঠানের প্রতিপাদ্য ছিল ‘টুট্টা কল্পা ডেল্পা লুনা’, যার মানে ‘চাঁদকে দোষারোপ করা’। যে কারণে এ বছরের অনুষ্ঠানে সবাই পাগলের বেশে মুখোশ পরে হই-হুল্লোড়ের মাধ্যমে উদযাপন করেছে দিনটি। কার্নিভালকে ঘিরে ভেনিসে জমেছিল বাহারি রঙের নৌকার সমাহার, কনসার্ট, পিয়াচ্ছা সান মার্কো বা সান মার্কো স্কয়ার টাওয়ারের চূড়া থেকে তার বেয়ে নিচে নেমে আসা এবং বিশ্ববিখ্যাত ফ্যাশন ডিজাইনারদের প্যানেলে সবচেয়ে সুন্দর মুখোশ নির্বাচন করা। ১১৬২ সালে অ্যাকুইলেইয়ার যুদ্ধে জিতেছিল ভেনিস। সেদিন লোকেরা নেচে-গেয়ে সান মার্কো স্কয়ার জমিয়ে রেখেছিল। সেটাকেই কার্নিভালের সূচনাকাল ধরা হয়। তবে বিভিন্ন কারণে প্রায় দুই শতক বন্ধ থাকা উৎসবটি আবার ১৯৭৯ সাল থেকে চালু হয়ে আধুনিক রুপে প্রতিবছর উদযাপিত হয়ে আসছে

দৈনিক ডোনেট বাংলাদেশ সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ট্যাগ:

সংশ্লিষ্ট সংবাদ: