সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে মিথ্যাচার; কঠোর মনিটরিং জরুরি – ডোনেট বাংলাদেশ

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে মিথ্যাচার; কঠোর মনিটরিং জরুরি

মো. নিজাম গাজী
আপডেটঃ ৪ জুলাই, ২০২২ | ৬:৩৮ 44 ভিউ
বর্তমান সরকারের সফলতা সমূহের মধ্যে অন্যতম একটি সফলতা হলো ডিজিটাল বাংলাদেশ বিনির্মাণ। ২০০৯ সালে যখন আওয়ামী লীগ সরকার ডিজিটাল বাংলাদেশের ঘোষণা দেয় তখন বরাবরের মত দেশ বিরোধী চক্রগুলো ঠাট্টা মশকরা করছে এবং বিভিন্ন ধরনের কটুক্তি করছে। অথচ আজ বাংলাদেশ সত্যিকার এক ডিজিটাল বাংলাদেশ পরিণত হয়েছে। এখন একেবারে প্রত্যন্ত অঞ্চলের লোকজনও ডিজিটাল সুবিধা পাচ্ছে। বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট, অনলাইনে আবেদন, মাইগভ অ্যাপ, ফোরজি, ডিজিটাল জনশুমারি ও গৃহগণনা সহ সব ধরনের ডিজিটাল সুবিধা, বিদ্যুৎ সুবিধা এবং ইন্টারনেট সুবিধা পাচ্ছে প্রান্তিক জনগোষ্ঠী সহ সারা বাংলাদেশের মানুষ। এই অবদান বর্তমান সরকারের এক অভূতপূর্ব অবদান। মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর এক বলিষ্ঠ সাহসিকতা। তাছাড়া সাম্প্রতিক উদ্বোধন করা হয়েছে বহুল আকাঙ্ক্ষিত

স্বপ্নের পদ্মাসেতু। দেশের এইসব উন্নয়ন ও সফলতা দেখে এক শ্রেনীর দেশ বিরোধী চক্র সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম বিশেষ করে ফেসবুক ও ইউটিউবে বর্তমান সরকারকে নিয়ে নানাবিধ মিথ্যাচার করছে প্রতিনিয়ত, এছাড়া এরা বিভিন্ন সময়ে বিভিন্ন ধরনের গুজবও রটনা করছে। এটি বেশ শঙ্কার একটি বিষয়। গ্রামের লোকজন ইউটিউব ও ফেসবুকে যা দেখে তাই তারা সহজেই বিশ্বাস করে নেয়; যা এক প্রকার অশনি সংকেত বহন করে। এই সরকারের ডিজিটাল বাংলাদেশের যারা বিরোধীতা করছে আজ তারাই এই সরকারের নির্মিত ডিজিটাল সুবিধা ভোগ করে সরকারের বিরুদ্ধে চরম মিথ্যাচার করছে দেদারসে। এতে বর্তমান সরকারের ভাবমূর্তি ক্ষুণ্ন হচ্ছে। তাই সরকারের সংশ্লিষ্ট বিভাগের উচিত সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম(ইউটিউব ও ফেসবুক) আরো

কঠোরভাবে মনিটরিং করা এবং এদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা। ইউটিউবে ব্যাঙ্গের ছাতার মত হাজার হাজার চ্যানেল রয়েছে যারা অনর্গল সরকারের বিরুদ্ধে এবং সরকারের সকল প্রকার সফলতার বিরুদ্ধে মিথ্যাচার করে যাচ্ছে। ফেসবুকেও এই ধরনের পেজ এবং আইডির ইয়ত্তা নেই। সবগুলো যেনো মিথ্যাচার করার জন্য গড়ে উঠছে। তারা মিথ্যাচার করে যাচ্ছে কিন্তু তাদের বিরুদ্ধে কোনো প্রকার ব্যবস্থা গ্রহণ করা হচ্ছেনা; ফলে তাদের মিথ্যাচার ও গুজবের তীব্রতা জ্যামিতিক হারে বৃদ্ধি পাচ্ছে। অতি- সত্তর এসব মিথ্যাচারের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণ করা জরুরি। সরকারের সংশ্লিষ্ট বিভাগ তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রণালয় এবং তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি মন্ত্রণালয়ের প্রতি বিশেষ অনুরোধ রইল সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে কঠোর মনিটরিংয়ের

মাধ্যমে এইসব মিথ্যাচারের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিয়ে সত্য প্রতিষ্ঠা করবে বলে -প্রত্যাশা করছি।

দৈনিক ডোনেট বাংলাদেশ সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ট্যাগ:

সংশ্লিষ্ট সংবাদ:


শীর্ষ সংবাদ:
অর্থ পাচার দুর্নীতি লুটপাটে বাড়ছে মূল্যস্ফীতি সারা দেশে ব্যাংকের শাখা পর্যায়ে ডলার লেনদেনের সুযোগ ব্রয়লার মুরগি ২শ টাকা কেজি পেঁয়াজের হাফ সেঞ্চুরি এক ট্রলারে ধরা পড়ল ৬০ মণ ইলিশ, ১৪ লাখে বিক্রি তিন সেকেন্ডেই পালটে দেয় মোবাইল ফোনের আইএমইআই নম্বর সন্তানকে বিক্রির জন্য বাজারে তুললেন মা! বিদেশি চাপে সরকার বিক্ষোভ সমাবেশে ঝামেলা করছে না: মির্জা ফখরুল রাজনীতিতে সক্রিয় হচ্ছেন সোহেল তাজ চলমান সংকট মোকাবিলায় ৬ মাসের প্যাকেজ গ্রহণের প্রস্তাব জাসদের শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে সাপ্তাহিক ছুটি দুদিন করার চিন্তা বাংলাদেশের মানুষ সুখে আছে, বেহেশতে আছে: পররাষ্ট্রমন্ত্রী কৃষ্ণ সাগরে কমে গেছে রাশিয়ার বিমান বহরের ক্ষমতা সরকার হটাতে সব দলকে এক হয়ে আন্দোলন করতে হবে: মান্না আ.লীগ মাঠে নামলে বিএনপি অলিগলিও খুঁজে পাবে না: কাদের ‘জন্মদিন পালনের কথা বলে হোটেলে এনে নারী চিকিৎসককে খুন’ নির্বাচিত হয়েও ফখরুলের সংসদে না যাওয়া নিয়ে যা বললেন কাদের ইরানে ড্রোন প্রশিক্ষণ নিচ্ছে রাশিয়া: যুক্তরাষ্ট্র নাটোরে বিএনপির বিক্ষোভ সমাবেশে পুলিশের বাঁধায় পন্ড মাগুরায় জেলা পরিষদের তৈরি স্থাপনা ভেঙ্গে দিল সড়ক বিভাগ শহরে আরও বাড়বে সংসদীয় আসন!